logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮

কারাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন জতেনদর

চুয়াডাঙ্গা×কারাভোগ×নাটোর×জজ×অবৈধ×বিজিবি×মামলা×হস্তান্তর×
ছবি আরটিভি নিউজ

চুয়াডাঙ্গায় এক বছর কারাভোগ শেষে জতেনদর দাস (৩৫) নামে এক ভারতীয় নাগরিককে ফেরত দিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা সীমান্তে ৭৬ নম্বর মেইন পিলারের কাছে বিজিবি-বিএসএফ'র মধ্যে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাকে ফেরত দেয়া হয়।

জতেনদর দাস ওরফে রাজেন্দ্র রাভিলা ভারতের ভগলপুর জেলার লদীপুর থানার উস্ত গ্রামের শ্রী সীতারাম দাসের ছেলে। তিনি একজন মানসিক প্রতিবন্ধী।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবি ও দর্শনা ইমিগ্রেশন সূত্রে জানা গেছে , ২০১৭ সালের ২৩ নভেম্বর নাটোর জেলার বাগাতিপাড়া উপজেলার সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশ করার দায়ে জতেনদর দাসকে আটক করে বিজিবি।

পরে তাকে বাগাতিপাড়া থানা পুলিশের কাছে মামলা দিয়ে হস্তান্তর করে বিজিবি। আইনি প্রক্রিয়াশেষে তাকে নাটোরের জেলা জজ আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ।

গত ২০১৯ সালের ১ আগস্ট নাটোরের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এর বিচারক সুলতান মাহমুদ অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে তাকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে। কারাভোগ শেষে ২০২০ সালের ২৫ নভেম্বর তাকে ভারতে ফেরত দেওয়ার জন্য দর্শনায় নেয়া হয়।

পরে কাগজপত্র জটিলতার কারণে চুয়াডাঙ্গা জেলা জজ আদালতে পাঠানো হয়। তাকে আবারও চুয়াডাঙ্গা জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

কাগজপত্র জটিলতা ঠিক হলে তাকে আজ পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে দেশে পাঠানো হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির অতিরিক্ত পরিচালক মেজর নিস্তার আহমেদ জানান, একবছর কারাভোগ শেষে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠকে মাধ্যমে তাকে ভারতে ফেরত দেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় পুলিশ জতেনদরকে তার মা মিয়াকা দেবীর কাছে বুঝিয়ে দেন।

পতাকা বৈঠকে নেতৃত্ব দেন চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির অতিরিক্ত পরিচালক মেজর নিস্তার আহমেদ ও ভারতীয় নদিয়া জেলার গেদে ইমিগ্রেশন ইনচার্জ শ্রী সন্দীপ কুমার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির সহকারী পরিচালক শেখ মো. ইমরান আলী, দর্শনা কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার জহির উদ্দীন বাবর, পোস্ট কমান্ডার নায়েব সুবেদার আব্দুল জলিল, বিএসবির নায়েব সুবেদার শওকত আলী, দর্শনা ইমিগ্রেশন পুলিশের ইনচার্জ এসআই আব্দুল আলীম, দর্শনা থানার এসআই আলমগীর হোসেন ও জেলা কারাগারের হেলাল উদ্দীন।

ভারতের পক্ষে ছিলেন ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গেদে কোম্পানি কমান্ডার এসি সামন্ত পাল, ইমিগ্রেশন ইনচার্জ আশুতোষ ভাওয়াল ও কৃষ্ণগঞ্জ থানার এসআই আমিরুল ইসলাম।

জেবি

RTV Drama
RTVPLUS