logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭

সওজের অফিস সহকারীকে পাঁচ বছর সাজা, বাড়ি বাজেয়াপ্ত

বরিশাল×প্রকৌশলী×মুদ্রাক্ষরিক×দুর্নীতি×বাংলাদেশ×
ফাইল ছবি
বরিশাল সড়ক ও জনপদ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীর অফিস সহকারী কাম মুদ্রাক্ষরিক একে এম সেলিম হাওলাদারকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড, অর্ধ কোটি টাকা অর্থদণ্ড ও বরিশাল নগরের আলেকান্দা মৌজায় তার স্ত্রীর নামে ১১ শতক জমির ওপর নির্মিত  চারতলা বাড়ি রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করার আদেশ দেয়া হয়েছে।

গতকাল সেলিমের উপস্থিতিতে দুর্নীতির অপরাধে এ রায় ঘোষণা করেন বরিশাল বিভাগীয় বিশেষ আদালতের বিচারক মহসিনুল হক।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী হারুন অর রশিদ জানান, তাকে দুর্নীতি আইনের ২০০৪ এর ২৬(২) ধারায় দুই বছর কারাদণ্ড এবং ২৭ এর  এক ধারায় তিন বছর কারাদণ্ড ও অর্ধকোটি টাকা অর্থদণ্ড ও স্ত্রীর নামে বাড়ি বাজেয়াপ্ত করার আদেশ দেয়া হয়।

সেলিমের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রয় করে অর্থদণ্ডের টাকা আদায় শেষে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেয়া এবং তার স্ত্রীর নামের বাড়ি বাজেয়াপ্ত করার জন্য জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মাছুদুল হক খান মামলার বরাত দিয়ে বলেন, সেলিমের বিরুদ্ধে ২০১১ সালের ১৮ এপ্রিল কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন দুদকের সহকারী পরিচালক ওয়াজেদ আলী গাজী।

অভিযোগে তিনি বলেন, সেলিমের কাছে স্থাবর- অস্থাবর সম্পত্তির হিসাব চেয়ে নোটিশ জারি করলে তিনি ২০০৯ সালের ৩ ডিসেম্বর হিসাব দাখিল করেন। হিসাবে  আলেকান্দা মৌজায় ১১ শতক জমিতে নির্মিত  চারতলা বাড়ির খরচ দেখায় ২৭ লাখ ২৭ হাজার ২১৫ টাকা। তার হিসাব বিবরণী যাচাই করতে গিয়ে তদন্ত কমিটি  সওজের চার সদস্যর কমিটি ২০১০ সালের ১ মার্চ বাড়িটির পরিমাপ করে ২৭ মার্চ বাড়িটির ব্যয় ৬৭ লাখ ৬৮ হাজার ৭৩৫ টাকা বলে প্রতিবেদন দাখিল করেন। তিনি হিসাব বিবরণীতে ৩৪ লাখ ৪১ হাজার ৫ ২০ টাকার হিসাব গোপন করে মিথ্যা তথ্য দাখিল করেন।

এছাড়াও সেলিমের ১৯৭৯ সালের ৮ মার্চ হতে ২০১০ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত আয় ব্যয় বিবরণী যাচাই করে দুদক কর্তা জানতে পারে তিনি ২২ লাখ ৭৩ হাজার ৫ ৯৮ টাকা আয়ের উৎস বহির্ভূত দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জন করে রাখে।

এ ধরনের অভিযোগ দিয়ে মামলা দায়ের হলে তদন্তে সত্যতা পেয়ে ২০১৫ সালের ১৯ মে দুদকের উপ- সহকারী পরিচালক তানভীর আহমদ সেলিমের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। রাষ্ট্রপক্ষ মামলায় পাঁচজনের সাক্ষ্যপ্রদান সক্ষম হয়।

সাক্ষী প্রমাণে দোষী সাব্যস্ত হলে আদালত দুর্নীতিবাজ সেলিমকে ওই সাজা দেন। রায় শেষে তাকে পুলিশ প্রহরায় বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

জেবি

RTV Drama
RTVPLUS