logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ২ মাঘ ১৪২৭

সুনামগঞ্জে পৃথক মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন, ৪ জনের ১৪ বছরের কারাদণ্ড

সুনামগঞ্জে পৃথক মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন, ৪ জনের ১৪ বছরের কারাদণ্ড
সুনামগঞ্জে পৃথক ৩টি ধর্ষণ মামলায় ৩ আসামীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড এবং এক লাখ টাকা জরিমানা প্রদান করেছেন বিচারক। এছাড়া একটি অপহরণ মামলার ৪ আসামীকে ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।  

সোমবার বিকেলে একসঙ্গে ৪টি মামলার রায় প্রদান করেছেন সুনামগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. জাকির হোসেন। 

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর (পি.পি.) অ্যাডভোকেট নান্টু রায়। 

আদালত সূত্রে জানা যায়, পৃথক ধর্ষণ মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- জেলার ছাতক পৌরসভার গনক্ষাই গ্রামের মৃত কানু বিশ্বাসের ছেলে কাঞ্চন বিশ্বাস (৩৫), দিরাই উপজেলার জগদল গ্রামের আব্দুল খালিকের ছেলে আব্দুল বাতির (২৮), জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীধরপাশা গ্রামের মৃত মোক্তার আলীর ছেলে সুমন মিয়া (২২)। তাদের তিনজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের সঙ্গে প্রত্যেকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেন। জরিমানার টাকা ভিকটিমকে ক্ষতিপূরণ হিসাবে দেয়া হবে। 

এদিকে ৪ অপহরণকারীদের ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছেন দায়রা জজ মো. জাকির হোসেন। 

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- ছাতক উপজেলার আন্দাইরগাঁও গ্রামের মৃত সুন্দর আলীর ছেলে জালাল উদ্দিন (২২), হেলাল উদ্দিন (২০), আবু রায়হানের ছেলে সাজল মিয়া (২৪), মৃত সইফুর রজমানের ছেলে অজুদ মিয়া (২৩)।  রায় ঘোষণার সময় এই চারটি মামলার আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ নারী ও শিশু দমন নির্যাতন ট্রাইবুনালের পিপি অ্যাডভোকেট নান্টু রায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করে জানান, সুনামগঞ্জে ধর্ষণ ও অপহরণের পৃথক চারটি মামলায় একসঙ্গে তিনজনকে যাবজ্জীবন এবং চারজনকে ১৪ বছরের করে কারাদণ্ড দেবার রায় এটাই প্রথম। 

মামলায় আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন, অ্যাডভোকেট রমজান আলী ও অ্যাডভোকেট রুবেল আহমদ। তারা জানান, ন্যায় বিচার পাওয়ার স্বার্থে তাদের আসামীরা উচ্চ আদালতে যাবেন।

এসএস

RTV Drama
RTVPLUS