logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ৭ মাঘ ১৪২৭

নারী সাজিয়ে ব্ল্যাকমেইল, মাদরাসা থেকে হেফাজতনেতা কাসেমী বরখাস্ত

Hezb-e-Islami leader Kasemi fired from blackmai
হেফাজতনেতা মাওলানা আব্দুর রহিম কাসেমী
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের শতবছরের প্রাচীনতম ইসলামি শিক্ষাপীঠ জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদরাসার শিক্ষক ও হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা মাওলানা আব্দুর রহিম কাসেমীকে মাদরাসা থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। পুরুষ সহকর্মীকে নারী সাজিয়ে ‘মুরব্বিদের ব্ল্যাকমেইল’করার অভিযোগে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে পাঠানো মাদরাসার মোহতামিম (অধ্যক্ষ) মুফতি মাওলানা মুরাবকুল্লাহ স্বাক্ষরিত মাদরাসার সভার কার্যবিবরণীতে মাওলানা আব্দুর রহিম কাসেমীকে অব্যাহতি দেওয়ার কথা জানান। মাদরাসার কার্যবিবরণীতে গত ১ ডিসেম্বর মাদরাসার সভায় ওই শিক্ষককে অব্যাহতি দেওয়া হয় বলে জানানো হয়।

মাদরাসার সভার কার্যবিবরণী থেকে জানা গেছে, মাওলানা আব্দুর রহিম কাসেমীর বিরুদ্ধে এক ব্যক্তিকে নারী সাজিয়ে মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষকদেরকে ব্ল্যাকমেইলিং করাসহ বেশ কিছু অভিযোগ আনা হয়েছে। পাশাপাশি ওই শিক্ষক যেন মাদরাসার নাম ব্যবহার করতে না পারেন সেদিকে সকলকে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।

জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদরাসার মোহতামিম (অধ্যক্ষ) মুবারকুল্লাহ স্বাক্ষরিত কার্যবিররণীতে বলা হয়, মাওলানা আব্দুর রহিম গত ১২ নভেম্বর পরিকল্পিতভাবে মাদারাসা ছাত্রদের ভুল বুঝিয়ে বিক্ষোভ করান। জামিয়ার সিনিয়রদেকে তিনি তোয়াক্কা করেন না। নিজের সহযোগী আব্দুল কুদ্দুসকে নারী সাজিয়ে মাদরাসার মুরুব্বিদের ব্ল্যাকমেইলিং করার চেষ্টা করেন। আব্দুল কুদ্দুছ বর্তমানে জেলহাজতে রয়েছেন।

এ ব্যাপারে শুক্রবার বিকেলে মাওলানা আবদুর রহিম কাসেমীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমাকে বরখাস্তের কাগজ এখনও পাইনি। কাগজপত্র না দেখে এ ব্যাপারে কোনো বক্তব্য দিবো না।

পি

RTV Drama
RTVPLUS