logo
  • ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

  ১৬ নভেম্বর ২০২০, ০৯:৩৩
আপডেট : ১৬ নভেম্বর ২০২০, ১০:১৯

চুয়াডাঙ্গার উথলী সোনালী ব্যাংকে ডাকাতি

পিপিই ও হেলমেট পরা ডাকাতরা এখনও অধরা

Robbers wearing PPEs and helmets are still elusive
চুয়াডাঙ্গার জীবননগরের উথলী সোনালী ব্যাংক শাখা
চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে উথলী সোনালী ব্যাংক শাখায় দিনের বেলায় ডাকাতির ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই ঘটনায় প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে, ডাকাতির ঘটনার মূল হোতাদের এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

গেল রোববার রাতে বাদী হয়ে জীবননগর থানায় অজ্ঞাত তিনজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপক আবু বক্কর সিদ্দিক। প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঘটনার সময় টাকা জমা দিতে যাওয়া ওই ব্যাংকের গ্রাহক এনামুল হক এবং আনিছুর রহমানকে জীবননগর থানায় নিয়েছে পুলিশ। তবে, ডাকাতির ঘটনার মূল হোতাদের এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। 

ঘটনাস্থল থেকে ডাকাতদলের ফেলে যাওয়া পিস্তলের অংশবিশেষ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর আতঙ্ক বিরাজ করছে উথলী এলাকাজুড়ে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন খুলনা বিভাগের অতিরিক্ত উপমহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি ক্রাইম) মো. নাহিদুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মো. জাহিদুল ইসলাম, জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মো. হাফিজুর রহমান, জীবননগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মুনিল লিংকন, চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা সার্কেল) আবু রাসেল, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) উপপরিচালক জিএম জামিল সিদ্দিক, সোনালী ব্যাংকের ফরিদপুর জিএম অফিসের জেনারেল ম্যানেজার (ইনচার্জ) খোকন চন্দ্র বিশ্বাস, সোনালী ব্যাংকের চুয়াডাঙ্গার পিন্সিপাল অফিসার ব্যবস্থাপক খন্দকার আবুল কালাম আজাদ, সহকারী ব্যবস্থাপক আনিসুর রহমান, জীবননগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলামসহ র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), ডিজিএফআই, ডিএসবি ও সিআইডির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। 

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম জানান, বাংলাদেশে যতোগুলো রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক আছে তার মধ্যে সোনালী ব্যাংক অন্যতম। এ ব্যাংকে যে ক্রাইমটা হয়েছে সেটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের শাদা পোশাকের পুলিশ, ডিবি পুলিশ ও পোশাকধারী পুলিশ ইতোমধ্যে আসামিদের ধরতে জোর তৎপরতা চালাচ্ছে। আমরা আশাবাদী দ্রুতই টাকা উদ্ধারসহ আসামিদের গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হবো।   

চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, বর্তমান যুগে এ ধরনের ঘটনা ঘটে না। কারণ সবাই জানে এখন ইনফরমেশন টেকনোলজি খুবই শক্ত। লুট হওয়া টাকা উদ্ধারের জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একাধিক সংস্থা মাঠে কাজ করছে। আশা করি খুব দ্রুত তারা আসামিদেরকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হবে। 

পুলিশের খুলনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি ক্রাইম) নাহিদুল ইসলাম বলেন, ব্যাংক চালানোর জন্য এ ভবন মোটেও উপযুক্ত না। আজকের এ ঘটনা আমাদের জন্য অনাকাঙ্ক্ষিত। আমার ধারণা এ জেলার মধ্যেই অপরাধীদের অবস্থান। আমরা আশাবাদী অল্প সময়ের মধ্যে আসামি ধরতে পারবো। ব্যাংক কর্তৃপক্ষের চরম গাফিলতি আছে। ব্যাংকের মতো একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানে একটা সিসি ক্যামেরাও নেই; বর্তমান যুগে এটা ভাবা যায় না।

উল্লেখ্য, গেল রোববার দুপুর ১টার দিকে জীবননগরে উথলী সোনালী ব্যাংক শাখায় দিনে দুপুরে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এসময় হেলমেট ও পিপিই পরিহিত তিন অস্ত্রধারী ব্যাংক কর্মকর্তাদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ ৮ লাখ ৮২ হাজার ৯০০ টাকা লুট করে পালিয়ে যায় ডাকাতরা। 
পি
 

RTVPLUS