smc
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৫ কার্তিক ১৪২৭

রাজধানীতে ঝুম ঝুম বৃষ্টি কুড়িগ্রামে ঘন কুয়াশা

  কুড়িগ্রাম (উত্তর) প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

|  ১৪ অক্টোবর ২০২০, ১৭:২৪ | আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০২০, ১৭:৩৭
Heavy rain in the capital, dense fog, rtv news
কুড়িগ্রামে ঘন কুয়াশায় কাজের মধ্যে বের হয়েছেন শ্রমিকরা

রাজধানী ঢাকায় ভ্যাপসা গরম আর মাঝে মাঝে ঝুম ঝুম বৃষ্টি হলেও উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামে ঘন কুয়াশা পড়তে শুরু করেছে। হিমেল হাওয়ায় জানান দিচ্ছে শীত আসতে আর বেশি দেরি নেই। 

গেলো এক সপ্তাহ ধরেই রাত ১০টার পর থেকে কুড়িগ্রামে হালকা কুয়াশা পড়তে থাকে। রাত গভীর হলে কুয়াশার ঘনত্বও বৃদ্ধি পায়। এই ঘন কুয়াশা সকাল সাড়ে সাতটা পর্যন্ত স্থায়ী হয়।

স্থানীয়রা পূর্বের অভিজ্ঞতা থেকে বলছেন, কুড়িগ্রাম হিমালয় পর্বতের কাছাকাছি হওয়ায় অগ্রহায়ণ মাসের শুরুতে শীত চলে আসে। তবে এবার কুয়াশা পড়ার ধরন দেখে তারা মনে করছেন এ বছর শীত আরও আগে চলে আসবে।

তবে সকালে ঘন কুয়াশার কারণে যারা কাজে বের হন তাদের একটু অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে।

সোনাহাট স্থলবন্দরের পাথর ভাঙার শ্রমিক কাদের, রহিম মিয়া ও জব্বার মিয়া আরটিভি নিউজকে জানান, এক সপ্তাহ ধরে কুয়াশা পড়ছে। যে কারণে সকাল সকাল তাদেরকে কাজে যেতে অসুবিধা হচ্ছে।

তারা আরও জানান, সকাল সাতটার দিকে তারা বাড়ি থেকে বের হন। প্রায় দশ কিলোমিটার পথ বাইসাইকেল চালিয়ে বন্দরে পৌঁছান। ঘন কুয়াশার কারণে তাদের জামা-কাপড় ও মাথা ভিজে যায়।

কৃষক আব্দুল হাই, মোতালেব মিয়া আরটিভি নিউজকে জানান, ভোরে অনেক শীত অনুভব হয়। সকালের ঘন কুয়াশা দেখে মনে হয় এবার প্রচণ্ড শীত পড়বে এই এলাকায়।

ভ্যানচালক আব্দুল করিম, মজিবর রহমান আরটিভি নিউজকে জানান, এই অসময়ে কুয়াশার জন্য সকাল বেলায় তাদের ভ্যান চালাতে কষ্ট হয়।  

অন্যান্য বছরগুলোতে হেমন্তের মাঝামাঝি বা শেষের দিকে শীত শুরু হয়। যা পৌষ বা মাঘ মাসে গিয়ে তীব্র আকার ধারণ করে। এবার আশ্বিনের শুরুতেই শীত অনুভূত হওয়ায় দুশ্চিন্তায় আছেন কুড়িগ্রামের চার শতাধিক চরাঞ্চলসহ জেলার নিম্নআয়ের মানুষ। কুড়িগ্রামের কচাকাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল আরটিভি নিউজকে জানান, তার ইউনিয়নের বেশিরভাগ এলাকা চরাঞ্চল। এখনও ৯০ ভাগ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করে। প্রতিবছর তারা বন্যা এবং শীতে ব্যপক কষ্ট করে। এবার আগেভাগে শীত পড়ার লক্ষণ দেখা দিচ্ছে।

আরটিভির আরও সংবাদ পড়ুনঃ

হজম সমস্যায় দুর্দান্ত সাত সমাধান 
যে ১০ কারণে স্ত্রীকে পাগলের মতো ভালোবাসেন স্বামী
বিয়ের পর মোটা হচ্ছেন? ওজন কমাতে যা করবেন 
জিরাতেই জিরো ফিগার
 

শীতের কবল থেকে এসব মানুষদের রক্ষা করতে আগেভাগে ব্যবস্থা নিতে সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করেন তিনি।

বামন ডাঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন আরটিভি নিউজকে জানান, তার ইউনিয়নটি চরাঞ্চল। এবারের পাঁচ দফা বন্যায় শতভাগ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আগত শীত প্রচণ্ড কাবু করবে এই ইউনিয়নের মানুষদের। এখানে শীতের কাপড় কেনার সামর্থ্য  নেই ৬০ ভাগ মানুষের। শীত মোকাবেলায় সঠিক সময়ে সরকারের পদক্ষেপ প্রত্যাশা করেন তিনি।  

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র সরকার  আরটিভি নিউজকে বলেন, আজ থেকে শীতকালীন আবহাওয়ার পরিমাপ শুরু হয়ে গেছে। আজ ভোর ছয়টায় জেলার তাপমাত্রা ছিল ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এখন থেকে রাত এবং দিনের তাপমাত্রা দিন দিন কমে আসবে। নভেম্বরের মাঝামাঝি থেকে শীতের তীব্রতা বাড়তে থাকবে। তবে এবার বৃষ্টিপাত বেশি হওয়ায় শীতের তীব্রতা কিছুটা কম হবে বলে তিনি জানান।

জেবি

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৪০৩০৭৯ ৩১৯৭৩৩ ৫৮৬১
বিশ্ব ৪,৪৩,৫৭,৬৭১ ৩,২৫,০৫,১৫৫ ১১,৭৩,৮০৮
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়