DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬

নিরাপদ সড়কের দাবি

ছবিতে রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে শিক্ষার্থীদের অবরোধের চিত্র

অনলাইন ডেস্ক
|  ২০ মার্চ ২০১৯, ১২:৫৭ | আপডেট : ২০ মার্চ ২০১৯, ১৩:১৬
নিরাপদ সড়কের দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো রাজধনীর বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে রেখেছেন শিক্ষার্থীরা। এতে প্রায় পুরো রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বুধবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে রাজধানীর বসুন্ধরায় আবাসিক এলাকার প্রবেশমুখে অবস্থান নিয়েছেন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসসহ (বিইউপি) বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কয়েক শ শিক্ষার্থী।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শাহবাগ মোড় অবরোধ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালেয়ের শিক্ষার্থীরা। এতে বন্ধ হয়ে যায় ওই এলাকার যান চলাচল।

 মিরপুর-নিউমার্কেট সড়কে অবস্থান নিয়েছেন ঢাকা সিটি কলেজ সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। এ সড়কেও যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে পুরান ঢাকার রায়সাহেব বাজার মোড়ে সড়ক অবরোধ করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শিক্ষার্থীরা। এতে অন্যান্য প্রতিষ্ঠিানের শিক্ষার্থীরাও যোগ দেন।

রাজধানীর ব্যস্ততম সড়ক ফার্মমগেটে রাস্তা অবরোধ করে রাখেন শিক্ষার্থীরা। তার বিভিন্ন যান বাহনের লাইসেন্স যাচাই করেন।

মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে কুড়িল বিশ্বরোডে রাস্তা পার হতে গিয়ে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে আবরার মারা যান। সহপাঠীর মৃত্যুর প্রতিবাদে দিনভর বিক্ষোভের পর সন্ধ্যায় সড়ক থেকে সরে যান বিইউপির শিক্ষার্থীরা। বুধবার সকাল ৮টা থেকে আবার আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দেয়া আটদফা দাবি- ১. পরিবহন সেক্টরকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত করতে হবে এবং প্রতিমাসে বাসচালকের লাইসেন্সসহ সকল প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চেক করতে হবে। ২. আটক হওয়া চালক ও সম্পৃক্ত সকলকে দ্রুততম সময়ে সর্বোচ্চ শাস্তির আওতায় আনতে হবে। ৩. আজ থেকেই ফিটনেসবিহীন বাস ও লাইসেন্সবিহীন চালককে দ্রুততম সময়ে অপসারণ করতে হবে। ৪. ঝুঁকিপূর্ণ ও প্রয়োজনীয় সকল স্থানে আন্ডার পাস, স্পিড ব্রেকার ও ফুট ওভারব্রিজ নির্মাণ করতে হবে। ৫. চলমান আইনের পরিবর্তন করে সড়কে হত্যার সঙ্গে জড়িত সকলকে সর্বোচ্চ শাস্তির আওতায় আনতে হবে। ৬. দায়িত্ব অবহেলাকারী প্রশাসন ও ট্রাফিক পুলিশকে স্থায়ীভাবে অপসারণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ৭. প্রতিযোগিতামূলক গাড়ি চলাচল বন্ধ করে নির্দিষ্ট স্থানে বাসস্টপ এবং যাত্রী ছাউনী করার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এবং ৮. ছাত্রদের হাফপাস অথবা আলাদা বাস সার্ভিস চালু করতে হবে।

জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়