Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮

আরটিভি নিউজ

  ০৫ জুন ২০২১, ২১:০৫
আপডেট : ০৫ জুন ২০২১, ২১:০৯

শাহজালাল বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল খোলার সময় জানালেন বিমান প্রতিমন্ত্রী

The minister said this while opening the third terminal of Shahjalal Airport
ফাইল ছবি

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল খোলার আনুমানিক সময় জানিয়েছেন বিমান পরিবহন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। তিনি বলেন, নির্ধারিত সময়ের আগেই খুলে দেয়া হবে তৃতীয় টার্মিনাল।

শনিবার (৫ জুন) দুপুরে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

মাহবুব আলী বলেন, ‘তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণ কাজে আমরা লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও এগিয়ে আছি। ২০২১ সালের জুনে এই টার্মিনালের ১৪ দশমিক ৫ ভাগ কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। তবে আজ পর্যন্ত কাজ শেষ হয়েছে সাড়ে ১৭ ভাগ। কোভিডের আগ্রাসনে সারাবিশ্ব যখন থমকে ছিল তখনও একদিনের জন্যেও বন্ধ হয়নি টার্মিনালের নির্মাণ কাজ। ২০২৩ সালের জুন মাসে এই টার্মিনালের নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। তবে আমরা আশা করছি নির্ধারিত সময়ের আগেই কাজ শেষ হবে।’

নির্মানাধীন টার্মিনালের আকারের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, তৃতীয় টার্মিনালটি বর্তমান বিমানবন্দরের দুই গুণেরও বেশি। টার্মিনালের সঙ্গেই আশকোনার হজক্যাম্প থেকে একটি টানেল যুক্ত থাকবে। এর মাধ্যমে সম্মানিত হাজিরা হজক্যাম্প থেকে সরাসরি বিমানবন্দরে প্রবেশ করতে পারবেন। প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী ও বহুমাত্রিক নেতৃত্বে উন্নয়নের মহাসড়কে পা রেখেছে বাংলাদেশ। এরই অংশ হিসেবে দৃষ্টিনন্দন এই তৃতীয় টার্মিনাল তৈরি হচ্ছে। এই টার্মিনালের সঙ্গে থাকবে মেট্রোরেল সংযোগ। টার্মিনালটি হবে সম্পূর্ণ অটোমেটেড। দৃষ্টিনন্দন এই বিমানবন্দরে পা রেখেই একজন বিদেশি বাংলাদেশের সৌন্দর্য অনুধাবন করতে পারবেন।’

এর আগে দুপুরে তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণ এলাকায় এলে বিমান প্রতিমন্ত্রীকে কাজের অগ্রগতির বিষয়ে অবগত করেন সাইট ম্যানেজাররা।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২৪ অক্টোবর শাহজালাল বিমানবন্দরের দ্বিতীয় পর্যায়ের সম্প্রসারণের অংশ হিসেবে প্রকল্পটির অনুমোদন দেয় একনেক। ২০১৯ সালের ২৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কাজের উদ্বোধন করেন।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) জানায়, ৫ লাখ ৪২ হাজার বর্গমিটারের এ টার্মিনালে একসঙ্গে ৩৭টি উড়োজাহাজ রাখার উপযোগী অ্যাপ্রোন বা পার্কিং এলাকা তৈরি করা হচ্ছে। তৃতীয় টার্মিনাল ভবনটি হবে ২ লাখ ৩০ হাজার স্কয়ার মিটারের। এর ভেতর আধুনিক সব সুবিধা পাবেন যাত্রীরা। এছাড়াও তৃতীয় টার্মিনালের সঙ্গে মেট্রোরেলের একটি সংযোগও থাকবে, থাকবে একটি স্টেশনও। এর ফলে বিমানবন্দর থেকেই সরাসরি মেট্রোরেলে করে নির্ধারিত গন্তব্যে যেতে বা আসতে পারবেন যাত্রীরা।

কেএফ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS