logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পৃথিবীর বুকে এমন অসম যুদ্ধ আর হয়নি: ফিরোজ আলী (ভিডিও)

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:২২ | আপডেট : ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৯:২২
ইমাম হোসাইন (রা.) ও পরিবারের সদস্যদের স্মরণে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে তাজিয়া মিছিলের মাধ্যমে দশদিনের শোক অনুষ্ঠান শেষ করেছে শিয়া মুসলমানরা। মহররমের ১ তারিখ থেকে প্রতিদিন সন্ধ্যায় বিভিন্ন ইমামবাড়ায় মর্সিয়া, মাতম, বয়ান ও আলোচনার আয়োজন করা হয়।

মোহাম্মদপুর শিয়া মসজিদে প্রতিদিন সন্ধ্যায় আলোচনায় অংশ নেন হুজ্জাতুল ইসলাম সৈয়দ ফিরোজ আলী আবেদী।

তিনি ইসলামের জন্য ইমাম হোসেইন ও তার পরিবারের ত্যাগ এবং তাদের প্রতি ইয়াজিদের নির্মমতার ঘটনাগুলো তুলে ধরেন।

ফিরোজ আলী বলেন, ইমাম হোসেইন সেদিন নিজের জীবন দিয়ে সত্যকে প্রতিষ্ঠিত করে গেছেন। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন নির্মম ও অসম যুদ্ধ আর হয়নি। মাত্র ৭২ জনের বিরুদ্ধে ৩০ হাজার সৈন্য মোতায়েন করে ইয়াজিদ। তিনদিনের বেশি সময় পানি বন্ধ করে দিয়ে যে নির্দয় আচরণ করা হয়েছে তা পৃথিবীতে কখনও ঘটেনি। তারা সেদিন ছয় মাসের শিশু আলী আসগরকে শহিদ করেছে। ১৩ বছরের কাসিমকে শহিদ করেছে। তবুও ইমাম হোসেইন ইয়াজিদের কাছে বায়াত গ্রহণ করেননি।

তিনি বলেন, সেদিন অসুস্থতার জন্য একমাত্র নবী পরিবারের পুরুষ সদস্য ইমাম হোসাইনের পুত্র, ইমাম জয়নুল আবেদীন (রা.) যুদ্ধে যাননি। এটি অনেকটা অলৌকিক ঘটনা। কারণ সেদিন তিনি যদি যুদ্ধে যেতেন তাহলে নবী পরিবারের পুরুষ সদস্য বলে আর কেউ থাকতো না। পরবর্তীতে ইমাম জয়নুল আবেদীন ইয়াজিদের দরবারে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার রাখেন। তিনি ইয়াজিদের দরবারে সবার সামনে কারবালার ময়দানে কী ঘটেছিল তা সবার সামনে তুলে ধরেন। তাতে দরবারে উপস্থিত সবাই ইয়াজিদকে ধিক্কার দিতে থাকে।

এদিকে আশুরার দশদিনের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলেও ইমাম হোসাইন (রা.) শাহাদাতের পর ৪০দিন পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত শোক পালন করবে অনেক শিয়া মুসলমান।

এসময় প্রতিদিন ইমামবাড়াগুলোতে মর্সিয়া, মাতম ও আলোচনা অনুষ্ঠান হবে।

এমকে  

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বাংলাদেশ এর সর্বশেষ
  • বাংলাদেশ এর পাঠক প্রিয়