• ঢাকা বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

চাঁদ দেখা কমিটির সিদ্ধান্ত পরিবর্তনে স্বজনের সাথে ঈদ হলো না অনেকের

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৫ জুন ২০১৯, ০২:১২ | আপডেট : ০৫ জুন ২০১৯, ০২:১৯
বুধবার পবিত্র ঈদ উল ফিতর। তাই বাড়িতে স্বজনদের সঙ্গে ঈদ করতে ইফতারের পরেই বাস স্ট্যান্ড ও রেল স্টেশনে ছুটে যান অনেকেই। কিন্তু রাত নয়টায় যখন ঘোষণা হয় ঈদ হবে বৃহস্পতিবার, সাথে সাথেই আবার ফিরে আসেন তারা। কারণ আরও একদিন ব্যবসা হবে বা অফিসের বাকি কাজগুলো করতে হবে। কিন্তু যখন রাত সোয়া ১১টায় ঘোষাণা হয় ঈদ বুধবারই হবে, তখন আর তাদের নতুন করে টিকিট করে বাড়ি যাওয়া সম্ভব না।

whirpool
এরকম বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে বিভিন্ন দোকানের কর্মচারী, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরিতর অসংখ্য মানুষকে।

আবু আব্বাস চাকরি করেন বসুন্ধরা শপিং সেন্টারে একটি ফ্যাশন হাউজে। তিনি জানান, ইফতারের পর বাসস্ট্যান্ডে যখন বাড়ি যাওয়ার অপেক্ষা করছি তখন মালিক ফোন করে জানান ফিরে আসতে। কিন্তু কিছুক্ষণ পরই যখন আবার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হলো, তখন আর বাড়ি যাওয়া সম্ভব না।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত এরকম অনেকেই আরটিভি অফিসে ফোন করে তাদের বিড়ম্বনার কথা জানান।

তারা বলেন, বর্তমান এই স্যাটেলাইটের যুগে কেন চাঁদ দেখা নিয়ে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগতে হবে? চাঁদ দেখা কমিটির প্রয়োজনীয়তা কতটুকু তা নিয়েও প্রশ্ন করেন অনেকে।

অনেক ব্যবসায়ী ফোন করে অভিযোগ করে বলেন, কমিটির সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের ফলে তাদেরও ব্যবাসায়ীক সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে হয়েছে। ফলে তাদের অর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে।   

মঙ্গলবার রাত সোয়া ১১টায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ বুধবার পবিত্র ঈদ উল ফিতর উদযাপনের ঘোষণা করেন। কিন্তু এর ঠিক আড়াইঘণ্টা আগে ঈদ বৃহস্পতিবার হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন।

জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি ধর্ম প্রতিমন্ত্রী রাত নয়টায় বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, জেলা প্রশাসন, মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ও  আবহাওয়া অফিসের তথ্যমতে দেশের কোথাও চাঁদ দেখার খবর পাওয়া যায়নি। তাই আগামীকাল বুধবার সারাদেশে রোজা পালন করা হবে এবং বৃহস্পতিবার পবিত্র ঈদ উল ফিতর উদযাপন করা হবে।

রাত সোয়া ১১টার ঘোষণায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, যেহেতু ঈদের বিষয়টি ধর্মীয় সম্পর্কীত। তাই দেশের বিশিষ্ট আলেম ও মুফতি সাহেবদের সঙ্গে পরামর্শ করে নতুন এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়