logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘ফণী খুলনা-সাতক্ষীরা উপকূল হয়ে রংপুর-দিনাজপুরে আঘাত হানবে’

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ০২ মে ২০১৯, ১১:৪৭ | আপডেট : ০২ মে ২০১৯, ১২:৫৫
আগামী শনিবার বাংলাদেশে আঘাত হানতে পারে বঙ্গোপসাগরে ‘সিভিয়ার সাইক্লোনে’ রূপ নেওয়া ঘূর্ণিঝড় ফণী। বর্তমানে যে পথে অগ্রসর হচ্ছে ফণি তাতে ভারতের উড়িষ্যা উপকূলে আঘাত হানবে। এরপর খানিকটা দুর্বল হয়ে বাংলাদেশের খুলনা-সাতক্ষীরা উপকূল দিয়ে প্রবেশ করে রংপুর-দিনাজপুরের দিকে আঘাত হানতে পারে। সাংবাদিকদের এই তথ্য জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান।

বুধবার সচিবালয়ে ঘূর্ণিঝড় ফণি মোকাবিলায় প্রস্তুতি সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

এসময় তিনি বলেন, এই ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের খুলনা, সাতক্ষীরা, রংপুর হয়ে দিনাজপুরের দিকে যেতে পারে। সেইসঙ্গে কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম উপকূলেও আঘাত হানতে পারে। আগামী  চার মে সকাল নাগাদ এ ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানতে পারে বাংলাদেশে।

ঘূর্ণিঝড় ফণীর গতিপথের তথ্য উল্লেখ করে ডা. এনামুর রহমান বলেন, ‘আমরা আশা করছি, ঘূর্ণিঝড়টির বর্তমান যে গতিপথ, সেই পথে এগিয়ে যেতে থাকলে এটি প্রথমে ভারতের উড়িষ্যায় আঘাত করবে, এরপর পশ্চিমবঙ্গে আঘাত করবে। এরপর দুর্বল হয়ে বাংলাদেশের খুলনা অঞ্চল হয়ে সাতক্ষীরা অঞ্চলে আঘাত করবে। আর যদি ঘূর্ণিঝড়টি দিক পরিবর্তন করে বাংলাদেশের দিকে আসে, তাহলে খুলনা, মোংলা, সাতক্ষীরা, চট্টগ্রাম হয়ে কক্সবাজার উপকূল পর্যন্ত এলাকায় ছড়িয়ে পড়বে।

ঘূর্ণিঝড় ফণির আঘাত মোকাবিলায় সরকার সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে বলে সভা শেষে সাংবাদিকদের জানান প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান। তিনি বলেন, আমরা এরই মধ্যে মন্ত্রণালয় থেকে কন্ট্রোল রুম খুলেছি। জাতীয় দুর্যোগ সাড়াদান কেন্দ্র (এনডিআরসি) প্রতিনিয়ত খবর দিয়ে যাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির (সিপিপি) সদর দপ্তর ও উপকূলীয় ১৯টি জেলায় কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।

বৈঠকে আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক মো. সামছুদ্দিন আহমেদ বলেন, শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণীর গতিপথ পরিবর্তন হয়ে সরাসরি বাংলাদেশে আঘাত হানলে তা হবে ভয়াবহ। এটি বর্তমানে গভীর সমুদ্রে বাংলাদেশ থেকে একহাজার কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে।

বৈঠকে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট, ফায়ার সার্ভিস, আবহাওয়া অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • বাংলাদেশ এর সর্বশেষ
  • বাংলাদেশ এর পাঠক প্রিয়