logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

আর যেন কোনো বদরুলের জন্ম না হয়

হোসাইন তারেক
|  ০৭ অক্টোবর ২০১৬, ১০:০৭ | আপডেট : ০৭ অক্টোবর ২০১৬, ১৪:০৩
আমি একজন নির্যাতিত মেয়ের পিতা। আল্লাহর কাছে দোয়া করি আর যেন কোনো বদরুলের জন্ম না হয়। কান্নাজড়িত কণ্ঠে কথাগুলো বলছিলেন ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের চাপাতির কোপে আহত সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিসের বাবা মাসুক মিয়া।

bestelectronics
স্কয়ার হাসপাতালে মেয়ে খাদিজা আক্তার নার্গিসকে দেখতে এসে তিনি এ কথা বলেন। বৃহস্পতিবার ভোরে সৌদিআরব থেকে ঢাকায় পৌঁছান মাসুক মিয়া। বিমানবন্দর থেকে সরাসরি স্কয়ার হাসপাতালে যান তিনি। মেয়ের শয্যাপাশে অনেকটা সময় কাটান।

বেলা দেড়টায় স্কয়ার হাসপাতালে পৌঁছান নার্গিসের বড় ভাই শামীম আহমেদ। তিনি চীনে মেডিকেলে পড়ছেন। বোনের ওপর হামলার খবর শুনে তিনিও ছুটে আসেন দেশে।

মাসুক মিয়া বললেন, প্রধানমন্ত্রী আপনারও সন্তান আছে। আজ আমার মেয়ের সঙ্গে যা হয়েছে কাল তা অন্যের মেয়েরও হতে পারে। আমার মেয়ের সঙ্গে যা হয়েছে তা যেন আর কারও সঙ্গে না হয়। বদরুলের বিচার না হলে আরও অনেক মায়ের বুক খালি হতে পারে।

তিনি বললেন, এভাবে আর কতোদিন চলবে? বদরুলরা জন্ম নিলে এভাবে নার্গিসরা হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়বে। বদরুল নামে যেন আর কোনো কলঙ্ক জন্ম না হয়।

নার্গিসের বাবা বললেন, বদরুল আমার সহজ-সরল মেয়েকে কুপিয়ে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছে। দ্রুতবিচার ট্রাইবুনালে প্রধানমন্ত্রীর কাছে তার শাস্তি দাবি করছি। না হলে আমার মতো আরও অনেক বাবার চোখের পানি ঝরবে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার আকূল আবেদন, তিনি যেন এর সুষ্ঠ বিচার নিশ্চিত করেন।

নার্গিসের বড়ভাই শামীম আহমেদ বললেন, আমি কোনো রাজনৈতিক পরিচয়ে যেতে চাই না। আমি চাই আমার বোনের ওপর হামলাকারীর যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হয়। যাতে আর কেউ বদরুলের শিকার না হয়।

তিনি বললেন, আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চাই। আমার বোনের সঙ্গে যা হয়েছে তা খুবই জঘন্য। এমন কাজ করার সাহস যেন আর কেউ না পায়।

ঢাকাস্থ জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তোফায়েল সামী নার্গিসকে দেখতে এসে বললেন, বদরুলদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হলে আর কোনো নার্গিসের এমন অবস্থা হবে না। আমরা নার্গিসের পাশে আছি। এর আগে রাজন হত্যায় কামরুলের বিচার হয়েছে দ্রুতবিচার ট্রাইবুনালে। বদরুলরে বিচার যেন দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালে করা হয়। যাতে আর কেউ এমন জঘন্য অপরাধ করার সাহস না করে।

গেল সোমবার বিকেলে সিলেট এমসি কলেজে পরীক্ষা দিয়ে ফেরার সময় বদরুলের হামলায় গুরুতর আহত হন নার্গিস। তিনি সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী। হামলাকারী বদরুল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক।

পরে নার্গিসকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে দ্বিতীয় অস্ত্রোপচার শেষে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

এইচটি/ এস

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়