Mir cement
logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

ইফতার বাজারে বিক্রেতা থাকলেও নেই ক্রেতা (ভিডিও)

ইফতার বাজারে বিক্রেতা থাকলেও নেই ক্রেতা
ইফতার বাজারে বিক্রেতা থাকলেও নেই ক্রেতা

ইফতার বাজারে বিক্রেতা আছে, বাহারি ইফতারির পসরাও আছে; তবে ক্রেতা সামান্য। তারপরও স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই। কারো কারো মুখে মাস্ক দেখা গেলেও স্বাস্থ্যবিধির অন্যান্য ব্যবস্থা ছিল উপেক্ষিত। আর স্বাস্থ্যসম্মত ইফতার নিয়েও ছিল ভোক্তাদের প্রশ্ন। এছাড়া ইফতার বলতেই যে ভাজা-পোড়া তারও ব্যতিক্রম ছিল না; জনস্বাস্থ্যবিদরা যাকে অস্বাস্থ্যকর হিসেবেই আখ্যায়িত করেন।

দেশে চলছে লকডাউন। রাজধানী ছেড়েছে অনেকে। করোনা সংক্রমণও ঊর্ধ্বমুখী। সবমিলিয়ে পাড়ায়-মহল্লায় যে ইফতার বাজারের ধুম সেটা এবার দেখা যাচ্ছে না। সবখানেই হাতেগোনা দোকান। ক্রেতাও হাতেগোনা।

বিক্রেতারা বলছেন, লকডাউনের জন্য ক্রেতা নেই। অফিস-আদালতসহ সব মার্কেট বন্ধ, ক্রেতা পাব কোথায়। তারপরও উপেক্ষিত থাকছে স্বাস্থ্যবিধি। এ বিষয়ে ক্রেতারা বলছেন, স্বাস্থ্যবিধি তেমন কিছুই মানা হচ্ছে না। হাতে গ্লাভস নেই, এভাবেই ইফতার দিয়ে দিচ্ছে।

স্বাস্থ্যসম্মত ইফতার কিনা তা নিয়েও রয়েছে প্রশ্ন। বাজারে ইফতার মানেই ভাজা-পোড়ার সমারোহ। আর এগুলো যে স্বাস্থ্যকর নয় তা বরাবরই বলে আসছেন জনস্বাস্থ্যবিদরা।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক নাজমুল হক ভুঁইয়া বলছেন, ভাজা-পোড়াতে সমস্যা থাকে। গ্যাস্ট্রিক, আলসারসহ অন্যান্য রোগ হয়ে থাকে। যারা এসব রোগে আক্রান্ত তাদের জন্য খুবই ক্ষতিকর। এছাড়া যাদের হৃদজনিত সমস্যা রয়েছে তাদেরও এড়িয়ে চলা উচিত ভাজা-পোড়া খাবার। সবার বাসায় তৈরি খাবার খাওয়া উচিত।

যেসব খাবার রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করে সেসব খাবারের প্রতি অভ্যস্ত হবার পরামর্শ দেন এই পুষ্টিবিদ।

এসআর/পি

RTV Drama
RTVPLUS