logo
  • ঢাকা বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

ডোপ টেস্টে মাদকাসক্ত ৬৮ পুলিশ ধরা, চাকরি গেলো ১০ জনের

DMP
ফাইল ছবি
স্বচ্ছতা আনতে ও মাদকমুক্ত পুলিশ ডিপার্টমেন্ট গড়তে পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট করানো হচ্ছে। ইতোমধ্যে কেবল ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে ৬৮ জন পুলিশ সদস্যদের মাদকাসক্তি ধরা পড়েছে। এরমধ্যে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে ১০ জনকে। আজ রোববার (২২ নভেম্বর) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারের উপ-কমিশনার (ডিসি) ওয়ালিদ হোসেন।

পুলিশ জানায়, ডিএমপি’র বর্তমান পুলিশ কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম গতবছর সেপ্টেম্বরে দায়িত্ব নেওয়ার পর পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট করার ঘোষণা দেন। তাতে এ পর্যন্ত ৬৮ জনের মাদক নেওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে ৭ জন এসআই, ১ জন সার্জেন্ট, ৫ জন এএসআই, ৫ জন নায়েক এবং ৫০ জন কনস্টেবল রয়েছেন।

এই ৬৮ জনের মধ্যে ৪৩ জনের বিরুদ্ধে পুলিশের বিভাগীয় মামলা করা হয়, ২৫ জনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে, ১৮ জনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। মামলা নিষ্পত্তি শেষে ওই ১৮ জনের মধ্যে ১০ জনকেই চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।

কেবল মাদক সেবন নয়, মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকা, মাদক দিয়ে কাউকে ফাঁসানো, উদ্ধার করা মাদক জব্দ তালিকায় কম দেখানোর মত অভিযোগও রয়েছে এই পুলিশ সদস্যদের কারও কারও বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, ডিএমপিতে সম্প্রতি মাদক বিক্রির অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন ১০ জন। মাদক দিয়ে ফাঁসানোয় অভিযুক্ত ১০ জন, এর মধ্যে ৫ জনেক বিভাগীয় সাজা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও উদ্ধারকৃত মাদক উদ্ধারের তুলনায় কম দেখিয়ে অর্থ গ্রহন করায় অভিযুক্ত হয়েছেন ৪ জন।

ডিসি ওয়ালিদ হোসেন বলেন, পুলিশে শুদ্ধি অভিযানে এসব চলমান প্রক্রিয়া মাত্র। মাদকের বিষয়ে পুলিশ জিরো টলারেন্স নীতিতে অটল রয়েছে। এক্ষেত্রে কাউকেই ছাড় দেওয়ার সুযোগ নেই। ঊর্ধ্বতন পর্যায় থেকে নির্দেশ রয়েছে, কেউ মাদকাসক্ত হয়ে বা মাদকে সম্পৃক্ত থেকে পুলিশে চাকরি করার সুযোগ নেই।

কেএফ

RTVPLUS