logo
  • ঢাকা রোববার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

জি কে শামীমের জামিনে দুর্নীতি, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলকে দুদকে তলব

ACC summons Deputy Attorney General on GK Shamim's bail
দুদকের লোগো এবং ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জান্নাতুল ফেরদৌস (রূপা)। ফাইল ছবি
কেসিনো বিরোধী বিশেষ অভিযান চলাকালে গ্রেপ্তারকৃত শীর্ষ ঠিকাদার জি কে শামীমসহ বিভিন্ন আসামিদের জামিন পেতে সহায়তা করার অভিযোগে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জান্নাতুল ফেরদৌস রূপাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল বুধবার (২৮ অক্টোবর) দুদকের উপ-পরিচালক (বিশেষ অনুসন্ধান ও তদন্ত-২) মোহাম্মদ ইব্রাহীম স্বাক্ষরিত একটি নোটিশে এই ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলকে আগামী ৪ নভেম্বর সকালে জাতীয় পরিচয়পত্র ও পাসপোর্টের কপি নিয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে।

দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানান, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জান্নাতুল ফেরদৌস (রূপা) এর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার ও হাল-জালিয়াতির মাধ্যমে ঘুষ গ্রহণপূর্বক জি কে শামীমসহ বিভিন্ন আসামিকে জামিন পাইয়ে দিয়ে বিপুল অর্থ হাতিয়ে নেওয়া এবং জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে। সুষ্ঠু অনুসন্ধানের স্বার্থে তার বক্তব্য শোনার জন্য নোটিশটি দেওয়া হয়েছে।

চলতি বছরের ৪ ও ৬ ফেব্রুয়ারি অস্ত্র ও মাদকের দুই মামলায় জি কে শামীমকে জামিন দেয় হাইকোর্ট। অস্ত্র মামলায় তাকে ৬ মাস এবং মাদক মামলায় ১ বছরের জামিন দেওয়া হয়েছিল। বিচারপতি একেএম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এসএম মুজিবুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এবং বিচারপতি রেজাউল হক ও বিচারপতি বিশ্বদেব চক্রবর্তীর হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই দুই মামলায় তাকে জামিন দেন। জামিনের বিষয়টি গোপন ছিল। মার্চের প্রথম সপ্তাহে জামিনের বিষয়টি ফাঁস হওয়ার পর আলোচনা-সমালোচনা শুরু হলে ৮ মার্চ তথ্য গোপন করে জামিন নেওয়ায় ওই জামিন স্থগিত ও বাতিল করা হয়।

দুর্নীতি দমন কমিশনের তলবের বিষয়ে বক্তব্য জানতে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জান্নাতুল ফেরদৌস রূপার বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।

কেএফ

RTVPLUS