• ঢাকা সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

নেইমারের মৌসুমই শেষ, বিশ্বকাপ নিয়ে শঙ্কা!

স্পোর্টস ডেস্ক
|  ০২ মার্চ ২০১৮, ১৫:৪৯ | আপডেট : ০৮ মার্চ ২০১৮, ১২:২৩
এবারের মৌসুম শেষ হয়ে গেছে আরো আগেই, কিন্তু নতুন করে শঙ্কা জেগেছে বিশ্বকাপে অংশ নেয়া নিয়ে। বিশ্বকাপে তার সেবা পাবে তো দল? বৃহস্পতিবারই অস্ত্রোপাচার করাতে ব্রাজিলে পৌঁছান নেইমার। গ্রীষ্মকালীন ট্রান্সফার মার্কেটে রেকর্ড গড়ে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দিয়েছিলেন তিনি।

ব্রাজিল জাতীয় দলের ডাক্তার রদ্রিগো লাসমার। এই শল্যবিদের কাঁধেই বর্তেছে নেইমারের অস্ত্রোপচারের গুরু দায়িত্ব। নেইমারের চোটগ্রস্ত পা নিবিঢ়ভাবে পর্যবেক্ষণের পর রদ্রিগো লাসমার স্পষ্টই জানিয়ে দিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে যেমনটা ধারণা করা হয়েছিল, চোটটা তার চেয়েও অনেক বেশি গুরুতর। ফলে অস্ত্রোপচার বাধ্যতামূলক। আর অস্ত্রোপচারের পর নেইমারকে মাঠের বাইরে থাকতে হতে পারে ৩ মাস!
 
গত রোববার ফরাসি লিগে মার্সেইয়ের বিরুদ্ধে চোট পেয়েছিলেন নেমার। পিএসজি ম্যানেজার উনাই এমরে দাবি করেছিলেন, প্রাথমিক পরীক্ষার পরে জানা গিয়েছে নেইমারের চোট গুরুতর নয়। গোড়ালির লিগামেন্টে আঘাত লেগেছে দলের সব চেয়ে দামি তারকার। 

পরদিন সোমবার করা দ্বিতীয় এক্সরে রিপোর্ট দেয় আরও বড় দুঃসংবাদ। এবার জানা যায়, মচকে যাওয়া নয়, আসলে নেইমারের ডান পায়ের পাতার হাড়ে হালকা চিড় বা ফাটল ধরেছে। পরদিনই পিএসজি ও ব্রাজিল জাতীয় দলের ডাক্তার একসঙ্গে বসে তাকে দ্রুত অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন।

সেই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নেই নেইমারকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে দেশ ব্রাজিলে। অস্ত্রোপচারে নেতৃত্ব দেবেন যিনি, সেই রদ্রিগো লাসমার এবার দিলেন আরও বড় দুঃসংবাদ। ব্রাজিলে নিয়ে যাওয়ার পর লাসমার নিবিঢ়ভাবে পর্যবেক্ষণ করেছেন চোটগ্রস্ত পায়ের।

শনিবারই বেলো হরিজেন্তোতে নেইমারের অস্ত্রোপচার করা হবে জানিয়ে লাসমার স্পষ্টই বলেছেন, তার পায়ের হাড়ের ফাটলটা গুরুতর। এটা অবশ্যই দুঃখের সংবাদ। কিন্তু আমি বুঝতে পারছি, এই মুহূর্তে অস্ত্রোপচারের বিকল্প নেই। তবে তাকে দ্রুত সারিয়ে তুলতে আমরা সেরা চেষ্টাই করব।

অধ্যাপক লাসমার সঙ্গে আরও বলেন, এই ধরনের চিড় বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই অদৃশ্য থেকে যায়। নেইমারের ক্ষেত্রে যেমনটা ঘটেছে। সবচেয়ে ভালো এবং একমাত্র উপায় হলো দ্রুত অস্ত্রোপচার করা। কারণ, রক্ষণাত্মক মানসিকতা দ্রুতই বড় বিপদ ডেকে আনতে পারে।

তিন মাস মাঠের বাইরে থাকা মানে পিএসজির হয়ে তার মৌসুম শেষ! সেক্ষেত্রে শঙ্কা থেকে যায় নেইমারের বিশ্বকাপে খেলা নিয়েও। এরই ব্রাজিলিয়ানদের গ্রাস করে নিয়েছে সেই শঙ্কা। ডাক্তার লাসমারের এই সংবাদ ব্রাজিলিয়ানদের বিশ্বকাপ শঙ্কাটা আরও বাড়িয়েই দেয়ার কথা। তবে লাসমার একটু হলেও আশার গান শুনিয়েছেন ব্রাজিলিয়ানদের। বলেছেন, তার প্রত্যাশা মাস তিনেকের মধ্যেই নেইমার পুরো সুস্থ হয়ে উঠবেন।

রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্রাজিল অভিযান শুরু করছে ১৭ জুন, সুইজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে।

ব্রাজিল সংবাদমাধ্যমের দাবি, ব্রাজিলের বেলো মাতেই দেই হাসপাতালে অস্ত্রোপচার হওয়ার কথা নেইমারের। পিএসজি তারকার বাবা বলেছেন, অস্ত্রোপচারের পরে অন্তত ছ’সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে থাকবে নেইমার।

আরও পড়ুন:

এএ/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়