• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

শীতে ত্বক-চুল নিয়ে চিন্তায়?

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৯ নভেম্বর ২০১৬, ১৪:১৮ | আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০১৬, ১৫:০০
শীত পড়েনি অথচ আবহাওয়ায় চলে এসেছে শুষ্কভাব। ঋতু বদলের এ দিনগুলোতে আমাদের ত্বকেও পড়ে আবহাওয়ার প্রভাব। এ সময় ত্বক ও চুল তার স্বাভাবিক আর্দ্রতা হারায়। হয়ে যায় রুক্ষ ও শুষ্ক। ত্বকে অনুভূত হয় টানটান ভাব। তাই এ সময় ত্বকের জন্য চাই বাড়তি যত্ন। শীতের শুরুর সময়টায় আমাদের ত্বক ও চুলের যত্ন ঠিক কী রকম হওয়া উচিত তা আমরা অনেকেই বুঝে উঠতে পারি না। তাই জেনে নিন ঋতু বদলের এ সময়ে ত্বক ও চুলের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে কী কী করবেন।

ত্বকের যত্নে

শীতের দিনে আমরা অনেকেই অতিরিক্ত গরম পানি ব্যবহার করি। এতে হয়তো কিছুক্ষণের জন্য উষ্ণতা পায়। কিন্তু এটি আমাদের ত্বকে বিরূপ প্রভাব ফেলে। অতিরিক্ত গরম পানি মুখের ত্বকের ফলিকলগুলোকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। ফলে ত্বক তার স্বাভাবিক আর্দ্রতা হারায়। তাই গোসলের সময় পানিতে কয়েক ফোঁটা জোজোবা বা বাদাম তেল দিলে তা ত্বককে আর্দ্র এবং মসৃণ করে। এ সময় সাবান ব্যবহার না করাই ভালো। এটি ব্যবহারে ত্বক আরো শুষ্ক হয়ে পড়ে। জেল জাতীয় ক্লেনজারও যতটা সম্ভব কম ব্যবহার করুন। পরিবর্তে বেছে নিন যেকোনো হাইড্রেটিং ক্লেনজার। ড্রাই স্কিন হলে কোনো ক্রিম-বেজড ক্লেনজার ব্যবহার করতে শুরু করুন।

শীতকালে সপ্তাহে অন্তত ৩-৪ দিন স্ক্রাবিং জরুরি। মধু আর চিনির ন্যাচারাল স্ক্রাবের জুড়ি হয় না। এছাড়া ত্বক নরম রাখতে ঘরেই তৈরি করতে পারেন মধু, দুধ, আমন্ড, ওটমিল দিয়ে ফেস মাস্ক। 

এ সময় ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখার জন্য ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। এটি ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে আর্দ্রতা ধরে রাখে। এতে ত্বক সজীব এবং টানটান থাকে। তাই ত্বকের ধরন অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার নির্বাচন করতে হবে।

অনেকেই মনে করেন, শীতের দিনে সানস্ক্রিন ব্যবহার না করলেও চলবে। কিন্তু এমনটা ভাবা ঠিক নয়। শীতের দিনের হালকা রোদ আমাদের ত্বকের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। তাই বাইরে বের হবার ৩০ মিনিট আগে এসপিএফ ১৫-৩০ সম্পন্ন সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে।

চুলের যত্নে

শীতকালে চুলে খুশকির সমস্যা বেড়ে যায়। এ সমস্যা দূর করার সবচেয়ে সহজ ঘরোয়া  উপায় হলো গোসলের আগে নারকেল তেলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা পাতিলেবুর রস মিশিয়ে চুলে ম্যাসাজ করতে হবে। তারপর গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে মাথায় জড়িয়ে রাখতে হবে। মিনিট ১৫ পর শ্যাম্পু করে ফেলতে হবে। এছাড়াও চুলের ঝলমলেভাব ও আর্দ্রতা ধরে রাখতে কখনোই ভেজা চুলে বাইরে বের হওয়া উচিত নয়। এতে করে চুলের আর্দ্রতা নষ্ট হয় এবং চুল ভেঙে যাবার সম্ভাবনা থাকে।

শীতকালে বাইরে ধুলোবালির পরিমাণ সাধারণত একটু বেশিই থাকে। এর হাত থেকে মুক্তি পেতে বাইরে বের হবার সময় মাথায় হিজাব, টুপি বা স্কার্ফ ব্যবহার করা যেতে পারে। 

আরকে/ডিএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়