close
ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ | ০১ পৌষ ১৪২৪

কেমন হবে গ্রীষ্মের চুলের যত্ন

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৮ এপ্রিল ২০১৭, ১৪:৪০ | আপডেট : ১৮ এপ্রিল ২০১৭, ১৫:০৭

বসন্তের হাওয়া বদলে গ্রীষ্মের তাপ শুরু হয়ে গেছে। সেই সঙ্গে ত্বক ও চুলেও পড়ছে এর  প্রভাব। এ সময়  রোদের কারণে ত্বকের চেহারা বদলে যায়। সেইসঙ্গে প্রভাব পড়ে চুলের উপরেও। গ্রীষ্মকালে সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মির কারণে চুল হয়ে পড়ে শুষ্ক, প্রাণহীন ও ভঙ্গুর। এজন্য এ সময়টাতে চুলের প্রতি একটু বেশি নজর দেয়া উচিত। যত্ন মানে যে বেশি বেশি প্রসাধনী ব্যবহার করা তা নয়। কিছু নিয়ম মেনে চললে খুব সহজেই গ্রীষ্মের ক্ষতির হাত থেকে চুলকে রক্ষা করা যায়। তাহলে জেনে নিন কেমন হবে এ সময়ের চুলের যত্ন।

  • গরমের সময় চুলের গোড়া সাধারণত একটু বেশি ঘামে। এর ফলে চুলের গোড়া নরম হয়ে চুল পড়া সমস্যা দেখা দেয়।তাই এ সময় বাইরে থেকে এসে বাতাসে চুলটা শুকিয়ে নিতে হবে। কোনোভাবেই ঘামে ভেজা চুল বেঁধে রাখা যাবে না। ধুলোবালি ও ঘামের কারণে চুল নিষ্প্রাণ হয়ে গেলে প্রয়োজনে প্রতিদিন শ্যাম্পু ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে শ্যাম্পু করার পর চুল ভালো করে ধুয়ে ফেলতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে শ্যাম্পু করার পর চুলের গোড়ায় যেন বাড়তি শ্যাম্পু না লেগে থাকে।
  • অতিরিক্ত খুশকির সমস্যা দূর করতে চুলে শ্যাম্পু করার আগে মাথায় স্ক্যাল্পে হালকা করে গরম তেল ম্যাসাজ করে নিতে পারেন। এর ফলে খুশকি সমস্যা দূর হবে পাশাপাশি এটি আপনাকে প্রাকৃতিক কন্ডিশনারের সুফলও দেবে।

  • চুলের যত্নে  টক দই, মেহেদি পাতা, মেথি গুঁড়া ও কাগজিলেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এটি চুলে ৩০ মিনিটের জন্য লাগিয়ে ধুয়ে ফেলতে পারেন। টক দই করবে ময়েশ্চারাইজারের কাজ। মেথির গুঁড়া খুশকি দূর করবে এবং চুলের ঔজ্জ্বল্য বাড়াবে কাগজিলেবুর রস। এ প্যাকটি মাসে অন্তত ১ দিন ব্যবহার করতে পারেন।
  • চুল পড়া সমস্যা রোধ করতে আমলকীর রস ও ক্যাস্টর অয়েল চুলের গোড়ায় হালকা করে ম্যাসাজ করুতে পারেন। ১ ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন। এ সময় চুলটা হালকা করে বেঁধে রাখতে হবে। ছেলেমেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রেই গরমের সময় চুলের এমন কোনো কাট দিতে হবে যেটি  আরামদায়ক।
  • অতিরিক্ত রোদে চুলের আগা ফেটে যাবার সম্ভবনা থাকে তাই এ সময় বাইরে বের হবার আগে অবশ্যই ছাতা ব্যবহার করতে হবে।

আরকে/ এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়