• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

সঞ্চয়পত্রের সুদের হার ‘কমছে’

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৯ জুন ২০১৮, ১০:৫৬ | আপডেট : ০৯ জুন ২০১৮, ১১:০১
সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমানো হবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। শুক্রবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সঞ্চয়পত্র সম্পর্কে আমি বক্তব্য বোধহয় দেয়নি। কিন্তু বলেছি, সঞ্চয়পত্রে যে মুনাফা আছে, সেটা নিয়ে আমি দুই একবার সভা দিয়েছিলাম, কিন্তু সেটা করতে পারিনি।

তিনি বলেন, বাজেটের পরপরই একটা সভা করবো, এবং এটার রিভিউ হবে। এটা নিয়মই। সঞ্চয়পত্রের যে রেট সেটা কখনই পারমানেন্ট নয়। এটা দুই তিন বছরে প্রায় রিভিউ হয়। আমাদের মনে হয়, এবার রিভিউ করতে একটু দেরি হয়েছে। এটা বাজেটের মাসে বা তার পরের মাসেই রিভিউ হবে।
--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : বাজেটে সুশাসন প্রতিষ্ঠার ইঙ্গিত নেই: মওদুদ
--------------------------------------------------------

সরকারের ঋণের বোঝা বেড়ে যাচ্ছে বলে গত বছর বাজেটের আগে সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী। কিন্তু পরে বাজেট অধিবেশনে মন্ত্রী এবং সংসদ সদস্যরা অর্থমন্ত্রীর ওই ঘোষণার তীব্র সমালোচনা করেন। ফলে শেষ পর্যন্ত আর সুদের হার কমানো হয়নি।

কিন্তু বাজেট ঘাটতি মেটাতে চলতি অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র থেকে যে পরিমাণ অর্থ ধার করার লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছিল, সরকার তার চেয়ে ৩৩ শতাংশ বেশি ঋণ নিয়ে ফেলেছে এপ্রিল মাসের মধ্যেই।

এ পরিস্থিতিতে গত মে মাসে বাজেটপূর্ব এক আলোচনায় অর্থমন্ত্রী বাজেটের পর সঞ্চয়পত্রের সুদ হার সমন্বয় করার কথা বলেছিলেন।

গত বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করেছেন। এতে ঘাটতি ধরা হয়েছে ১ লাখ ২৫ হাজার ২৯৩ কোটি টাকা, যা জিডিপি’র ৪.৯ শতাংশ। ঘাটতি অর্থায়নে বৈদেশিক সূত্র থেকে ৫৪ হাজার ৬৭ কোটি টাকা (জিডিপি’র ২.১ শতাংশ) এবং অভ্যন্তরীণ সূত্র হতে ৭১ হাজার ২২৬ কোটি টাকা (জিডিপি’র ২.৮ শতাংশ) সংগ্রহ করা হবে।

অভ্যন্তরীণ উৎসের মধ্যে ব্যাংক ব্যবস্থা হতে সংগৃহীত হবে ৪২ হাজার ২৯ কোটি টাকা (জিডিপি’র ১.৭ শতাংশ) এবং সঞ্চয়পত্র ও অন্যান্য ব্যাংক-বহির্ভূত খাত থেকে আসবে ২৯ হাজার ১৯৭ কোটি টাকা (জিডিপি’র ১.২ শতাংশ)।

আরও পড়ুন : 

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়