• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

সিলেট সিটিতে বিএনপিকেই ছাড় দিচ্ছে না বিএনপি

রাজ্জাক রুনু, সিলেট
|  ৩০ জুন ২০১৮, ১৪:৫১ | আপডেট : ৩০ জুন ২০১৮, ১৫:১১
সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অনেক চড়াই উৎরাই পেরিয়ে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেলেও এখনও বেকায়দায় রয়েছেন আরিফুল হক চৌধুরী। দলের বিদ্রোহী প্রার্থী বদরুজ্জামান সেলিম ও জামায়াতের প্রার্থী এহসানুল মাহবুব জুবায়ের তাকে ছাড় দিচ্ছেন না কিছুতেই। সেলিম স্বতন্ত্র এবং জুবায়ের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন নাগরিক ফোরামের ব্যানারে।

বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বদরুজ্জামান আরটিভি অনলাইনকে বলেন, দল আরিফুলকে মনোনয়ন দিলেও এখানকার নেতাকর্মীরা আমাকেই মেয়র পদে দেখতে চান। ঢাকার গুলশান অফিসে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা যখন সিলেটে মেয়র পদে আরিফুলের নাম ঘোষণা করেন তখনই আমি এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছি।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : কুষ্টিয়ায় ছাত্রদল-বিএনপির ৩৪ নেতাকর্মী আটক, ২৩ ককটেল উদ্ধার
--------------------------------------------------------

সেলিম আরও জানান, নেতাকর্মীদের চাপের মুখে মনোনয়নপত্র জমা দিতে বাধ্য হয়েছেন তিনি। স্থানীয় বিএনপির নেতাকর্মীরা নির্বাচনে তার সঙ্গেই থাকবেন বলে দাবি তার। তার মতে আরিফুলের সঙ্গে সিলেট বিএনপির তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সম্পর্ক নেই। গত পাঁচ বছর তিনি সিলেটের মেয়র ছিলেন, কিন্তু দলের নেতাকর্মীদের থেকে বিচ্ছিন্ন ছিলেন।

এদিকে আরিফকে সমর্থন দিয়ে গেল নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন জামায়াত নেতা জুবায়ের। এবারও মেয়র পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন জুবায়ের। তবে এবার আর আরিফকে ছাড় দিতে নারাজ তিনি।

এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বলেন, গত নির্বাচনের আগে বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল এ নির্বাচনে জামায়াতকে এই সিটি ছেড়ে দেয়া হবে। এই শর্তে আমি গত নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেই। কিন্তু বিএনপি এবার কথা রাখেনি। তারা আলাদা প্রার্থী দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সিলেট জামায়াত নেতাকর্মীদের আগ্রহে আমি প্রার্থী হয়েছি। তাদের দাবি আমি যেন নির্বাচন করি। এখনও পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে জোট থেকে প্রার্থী ঘোষণা করা হয়নি। শুধু বিএনপি তার প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে। আমরা আশাবাদী যে জোট আমাকেই প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করবে।

চূড়ান্তভাবে প্রার্থী ঘোষণার জন্য কয়েক দিন অপেক্ষা করতে হবে জানিয়ে জুবায়ের বলেন, আমরা এখনও পর্যন্ত নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছি।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচন সবসময় জোটভিত্তিক হয় না। জোটভিত্তিক হয় জাতীয় নির্বাচন। আমরা গতবারের সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিলেও তা শেষ মুহূর্তে প্রত্যাহার করে নেই বিএনপির আশ্বাসে।

জুবায়ের বলেন, যদি জোটের পক্ষ থেকে কোনও আশানুরুপ ঘোষণা না আসে তাহলে দাঁড়িপাল্লা প্রতীক না থাকায় আমরা আমাদের মতো স্বতন্ত্র থেকেই সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচন করব।

দল ও জোটের মধ্যে বিদ্রোহের বিষয়ে জানতে চাইলে আরিফুল হক চৌধুরী আরটিভি অনলাইনকে বলেন, বিএনপি যেহেতু একটি বড় দল সেহেতু টুকটাক সমস্যা থাকবে। তবে এখনও সময় আছে যারা বিএনপি ও শরিক দল থেকে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন তাদের ব্যাপারে বিএনপি ও জোটের কেন্দ্রীয় নেতারা সিদ্ধান্ত নেবেন। তিনি বলেন কেন্দ্র থেকে আমাকে যেভাবে বলা হয়েছে আমি সেইভাবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি।

সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন আরটিভি অনলাইকে বলেন, দলের সিদ্ধান্তের পক্ষে আমরা ঐক্যবদ্ধ। দলে মান-অভিমান থাকতেই পারে। আমরা দ্রুত সেটি মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা করব।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ বলেন, দল যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। আমরা সবাই ধানের শীষের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ।

আরও পড়ুন :

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়