• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

শেরপুরে ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

শেরপুর প্রতিনিধি
|  ২৮ জুন ২০১৮, ১৬:৫২ | আপডেট : ২৮ জুন ২০১৮, ১৭:৪৮
শেরপুরে কিশোরীকে অপহরণ করে ধর্ষণের দায়ে পারভেজ ইসলাম খোকন (২৪) নামে এক যুবকের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এর পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে শিশু আদালতের বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. মোসলেহ উদ্দিন এ রায় ঘোষণা করেন। সাজাপ্রাপ্ত পারভেজ নালিতাবাড়ী উপজেলার বনকুড়া গ্রামের হারেজ আলীর ছেলে।

দণ্ডপ্রাপ্তের অনুপস্থিতিতে ঘোষিত এ রায়ে একই সঙ্গে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের আরেকটি ধারায় ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৪ মাসের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ ঘোষণা করা হয়েছে।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: পাবনায় শিশু হত্যায় একজনের মৃত্যুদণ্ড
--------------------------------------------------------

রায়ের সত্যতা নিশ্চিত করে শিশু আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু বলেন, অপহরণ করে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক এ সাজার রায় ঘোষণা করেছেন। রায়ে আসামির বিরুদ্ধে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় ধর্ষণের অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ৭ ধারায় অপহরণের অভিযোগে ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ঘোষণা করা হয়েছে। উভয় সাজা একত্রে চলবে বলেও আদালত আদেশ দিয়েছেন।

মামলার অভিযোগ, ২০১৫ সালের ১২ নভেম্বর সন্ধ্যায় নালিতাবাড়ী উপজেলার একটি গ্রামের ১৪ বছর কিশোরী বাড়ির পাশে তার এক বান্ধবীর সঙ্গে কথা বলছিলো। এই সময় পার্শ্ববর্তী বনকুড়া গ্রামের হারেজ আলীর ছেলে পারভেজ ইসলাম খোকন সেখান থেকে তাকে জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায়।

পরে তাকে পাবনা জেলাসহ বিভিন্ন স্থানে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় অপহৃতার বাবা বাদী হয়ে পারভেজ ইসলাম খোকনসহ আটজনকে আসামি করে ২০১৬ সালের ১১ জুলাই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার এবং অপহরণকারী ধর্ষক পারভেজ ইসলাম খোকনকে গ্রেপ্তার করে।

আরও পড়ুন: 

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়