• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

এতেও কি শোধরাবেন সাব্বির?

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২০:১২ | আপডেট : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২০:২৮
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের একটা কমেন্ট আর একটা মেসেজেই প্রায় কোটি টাকার ক্ষতির মুখে জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাব্বির রহমান। কোটি টাকার ক্ষতিটা একজন ক্রিকেটারের জন্য যতটা না খারাপ লাগার কথা তার চেয়েও খারাপ লাগার বিষয়, মাঠের ক্রিকেটে না থাকাটা। শারীরিকভাবে ফিট থেকেও সতীর্থদের খেলা দেখতে হবে গ্যলারি কিংবা টিভি সেটের সামনে বসে।

এই ছয়মাস কিভাবে কাটাবেন সাব্বির! এই প্রশ্নের উত্তর কি আদৌ মিলবে কোথাও? 

কিন্তু এবারই যে প্রথম না এই সাব্বিরের! এর আগেও বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি পেতে হয়েছে তাকে।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : সাব্বিরকে ৬ মাস নিষিদ্ধ করার সুপারিশ
-------------------------------------------------------

চলতি বছরের শুরুতে ঘরোয়া লিগের ম্যাচ চলাকালীন এক ভক্তকে পেটানোয় ২০ লাখ জরিমানা সাথে ছয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ হতে হয়েছিল ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে। সেই নিষেধাজ্ঞার প্রভাব ঠিকই পড়েছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে।

এত লম্বা সময়ের শাস্তিও যে তাকে শোধরাতে পারেনি তার প্রমাণ দিয়ে যাচ্ছিলেন শাস্তি চলাকালীন সময়েও। একের পর এক বিতর্কে জড়িয়ে নিজেকে হয়তো প্রমাণ করতে চেয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের ‘ব্যাড বয়’ হিসেবে।

ক’দিন পরই এশিয়া কাপ। সাব্বিরের এই দলে থাকাটা স্বাভাবিকই ছিল কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিনি নেই। এটা জোর করে হলেও তাকে মেনে নিতে হচ্ছে।

শুধু এশিয়া কাপই মিস করছেন না তিনি, মিস করতে যাচ্ছেন আগামী ছয় মাসে সব আন্তর্জাতিক ম্যাচ।

গত মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরেও দারুণ ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছিলেন ব্যাটে-বলে। ক্যারিবীয় দ্বীপে বসে সেটার ঝাঁজ উড়ালেন ভক্তে’র উপর। 

খারাপ খেলায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে করা মন্তব্যকারীকে খুঁজে নিয়ে হুমকি ও অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন এই হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান।

ওই সিরিজ চলাকালীন সময়েই দলে থাকা আরেক সতীর্থের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন হাতাহাতিতে। এটিও আবার মিটমাট করেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

অনেক দিন ধরে হয়ে আসা এতসব ঘটন-অঘটন ঠিকই পৌঁছে যায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কাছে।

আজ শনিবার অবশ্য এতসব সব কিছু নিয়ে বিচারের শুনানি করেনি বিসিবি। শুনানি হয় ফেসবুকে ভক্তকে গালি দেয়ার জন্য।

সাব্বির যদিও বিসিবির ডিসিপ্লিনারি কমিটির কাছে স্বীকার করেছেন, ব্যপারটি ছিল দুর্ঘটনা। তার আইডি হ্যাক হওয়াতেই নাকি এমন কাণ্ড ঘটেছিল।

বিসিবির ডিসিপ্লিনারি কমিটির সঙ্গে প্রায় একঘণ্টা ধরে আলোচনা হয় ২৬ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের সঙ্গে। তারপরই গণমাধ্যমের সামনে আসেন এই কমিটির প্রধান শেখ সোহেল ও বিসিবি পরিচালক এ.এইচ মল্লিক।

শুনানি শেষে মল্লিক বলেন, আজকে সাব্বিরের শুনানি ছিল ফেসবুকের ঘটনাটার কারণে। যদিও সে বলেছে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছিলো। বাকি কার্যকলাপের বিষয়ে সে কিছু বিষয় স্বীকার করেছে। ওই বিষয়ে তাকে নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

তার উপর এই নিষেধাজ্ঞা কতটা প্রভাব ফেলবে এমন প্রশ্নে মল্লিক বলেন, এতদিন তার শাস্তি ছিল আর্থিক জরিমানা ও ছয় মাস নিষেধাজ্ঞা। এর চেয়ে বড় শাস্তি হলো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ। এর সঙ্গে বলা হয়েছে, ভবিষ্যতে এ রকম কিছু ঘটলে তাকে বড় শাস্তি দেয়া হবে। হয়তো তাকে দীর্ঘ মেয়াদে নিষিদ্ধ করা হতে পারে। 

এর আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞা পেয়ে নিজেকে কতটা ঠিক করতে পেরেছে সাব্বির?

উত্তরে এই বিসিবি পরিচালক বলেন, আগের শাস্তিতে আমরা হিসেবে করে দেখেছি তার আর্থিকভাবে দেড় কোটি টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে। কেউ নিজেকে শোধরায়, কেউ শোধরায় না। একটা কথা বলতে পারি, বোর্ড সভাপতি পরিষ্কার বলে দিয়েছেন, শৃঙ্খলা ভঙ্গের শাস্তি কঠোর হবে। যে শাস্তিগুলো দেয়া হচ্ছে, তা বোর্ডের আলোচনার আলোকে। 

শাস্তি তো দেয়া হলো কিন্তু সাব্বিরের সমস্যাটা কোথায়? এমন প্রশ্নের জবাবে মল্লিক বলেন, গাইডেন্সের কথা বলবো। বন্ধু-বান্ধব যাদের সঙ্গে চলে, তাদের কারণে হতে পারে। বোর্ড প্রধান কঠোর হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। ভবিষ্যতে আরো কড়া শাস্তি দেয়া হতে পারে। তখন হয়তো ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও সে দীর্ঘ মেয়াদে নিষিদ্ধ থাকতে পারে।

আরও পড়ুন :

এমআর/ওয়াই

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়