• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

বিরোধাদলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম আর নেই

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৪ আগস্ট ২০১৮, ০৮:৪২ | আপডেট : ১৪ আগস্ট ২০১৮, ০৯:০২
জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। 

রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে সোমবার রাত ১১টা ৫০ মিনিটে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।

তাজুল ইসলাম চৌধুরী কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ছিলেন।

১২ আগস্ট রোববার দুপুরে তাজুল ইসলাম চৌধুরীকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ডায়বেটিস ও কিডনি জটিলতায় ভুগছিলেন। সেখানে আইসিউতে ভর্তি ছিলেন।

আজ মঙ্গলবার বাদ আসর জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেন মুহম্মদ এরশাদ, সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার। তারা তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং মরহুমের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

তারা এক শোকবার্তায় বলেন, তাজুল ইসলাম চৌধুরীর মৃত্যুতে দেশ একজন দেশপ্রেমিক রাজনীতিবিদকে হারালো। তাজুল ইসলাম চৌধুরীর অভাব দীর্ঘদিন অনুভব করবে দেশ। রাজনীতি ও মানবসেবায় তার অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

দলীয় নেতাকর্মী এবং সাধারণ মানুষের প্রতি মরহুম তাজুল ইসলাম চৌধুরীর ভালোবাসা গভীর কৃতজ্ঞতার স্মরণ করেন তারা। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ও মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

তাজুল ইসলাম চৌধুরীর মৃত্যু সংবাদে রাতেই ইউনাইটেড হাসপাতালে ছুটে যান পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়া উদ্দিন আহমেদ, এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙা, বিরোধীদলীয় হুইপ নুরুল ইসলাম ওমর, শওকত চৌধুরীসহ জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা।

এছাড়া তার মৃত্যুতে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনিও তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং মরহুমের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

আরও পড়ুন  :

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়