• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

ম্যাককেইনের শেষকৃত্যানুষ্ঠানে সারাহ পলিন নিষিদ্ধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ৩১ আগস্ট ২০১৮, ১১:০২ | আপডেট : ৩১ আগস্ট ২০১৮, ১১:১৫
১০ বছর আগে পলিনকে রানিং মেট হিসেবে ঘোষণা করেন ম্যাককেইন

আলাস্কার সাবেক গভর্নর সারাহ পলিনকে জন ম্যাককেইনের শেষকৃত্যানুষ্ঠানে নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। মার্কিন গণমাধ্যম জানাচ্ছে, পারিবারিক একজন মধ্যস্থতাকারীর মাধ্যমে ২০০৮ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ম্যাককেইনের রানিং মেট পলিনকে শেষকৃত্যানুষ্ঠানে যোগ না দিতে অনুরোধ করা হয়েছে। খবর বিবিসির।

মার্কিন গণমাধ্যম এনবিসি নিউজ পলিনের একটি ‘পারিবারিক সূত্রের’ বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ম্যাককেইন পরিবারের প্রতি সম্মানার্থে এই মুহূর্তে আমাদের কিছুই বলার নেই। পরিবারের একজন প্রতিনিধি বুধবার বলেন, পলিন পরিবার ম্যাককেইনের সঙ্গে বন্ধুত্ব সবসময় সযত্নে পুষে রাখবে এবং স্মৃতিগুলোকে কখনও ভুলবে না।

ম্যাককেইনের মৃত্যুর পর জোড়া টুইট করেন পলিন। এক টুইটে সাবেক রানিং মেটকে ‘একজন খাঁটি দেশপ্রেমিক ও যোদ্ধা’ উল্লেখ করে বলেন, তিনি সবসময় নিজের বিশ্বাসের প্রতি অটল থেকেছেন।

আরেক টুইট বার্তায় পলিন লিখেন, জন ম্যাককেইন আমার বন্ধু ছিল। আমি ভালো সময়গুলো মনে রাখবো। সিন্ডি ও ম্যাককেইন পরিবারের প্রতি আমি এবং আমার পরিবার প্রার্থনা করছি।

পিপল ম্যাগাজিন বুধবার ম্যাককেইন পরিবারের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, পলিনের ব্যাপারে এই সিদ্ধান্তটা সম্ভবত ম্যাককেইন স্ত্রী সিন্ডি নিয়েছেন।

নামহীন ওই সূত্রটি জানিয়েছে, জনের স্মৃতি ও তার অর্জন সংরক্ষণের ব্যাপারে তিনি খুব সচেষ্ট। তিনি একজন ভারাক্রান্ত বিধবাও। আমি মনে করি তিনি এই অবস্থা থেকে উত্তরণে তার সাধ্যমতো চেষ্টা করছেন।

পিপল ম্যাগাজিন জানাচ্ছে, পলিনকে শেষকৃত্যানুষ্ঠানে যোগ না দেয়ার বার্তা একজন মধ্যস্থতাকারীর মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে।

ম্যাককেইন পরিবারের ঘনিষ্ঠ একজন তহবিল সংগ্রহকারী কার্লা ইউডি পিপল ম্যাগাজিনকে বলেন, পলিন বা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, কাউকেই ‘অনুষ্ঠানে আসার আমন্ত্রণ জানানো হয়নি’।
-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ধর্ম অবমাননাকর কার্টুন প্রতিযোগিতা বাতিল ডাচ এমপি’র
-------------------------------------------------------

বুধবার বাবার কফিনের সামনে কান্নায় ভেঙে পড়েন মেগান ম্যাককেইন

২০০৮ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নিজের ভাইস প্রেসিডেন্ট রানিং মেট হিসেবে সারাহ পলিনের নাম ঘোষণা করেন ম্যাককেইন। এরপরই মূলত আলোচনায় আসেন তুলনামূলক কম পরিচিত আলাস্কার রাজনীতিক পলিন।

গেল মে মাসে ম্যাককেইন একটি বই প্রকাশ করেন। সেখানে তিনি তার বন্ধু ও সাবেক ডেমোক্রেট সিনেটর জো লিবারম্যানের পরিবর্তে পলিনকে রানিং মেট হিসেবে নির্বাচিত করায় খেদোক্তি করেন।

এদিকে বুধবার প্রচণ্ড গরমের মধ্যে অ্যারিজোনার হাজার হাজার মানুষ ম্যাককেইনকে শেষ শ্রদ্ধা জানান। বৃহস্পতিবার সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নেতৃত্বে শ্রদ্ধা জানাতে ম্যাককেইনের মৃতদেহ অ্যারিজোনার একটি চার্চে নিয়ে যাওয়া হয়।

এক আবেগী বক্তৃতায় ডেলাওয়ার থেকে ছয়বারের নির্বাচিত সাবেক এই ডেমোক্রেট সিনেটর ম্যাককেইনকে ভাই হিসেবে সম্বোধন করেন।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার অ্যারিজোনায় ম্যাককেইনের শেষকৃত্য সম্পন্ন হওয়ার পর তার মৃতদেহ ওয়াশিংটন নিয়ে যাওয়া হবে। শনিবার ওয়াশিংটনের ন্যাশনাল ক্যাথিড্রালে একটি সার্ভিস অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও জর্জ ডব্লিউ বুশ ছাড়াও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেনরি কিসিঞ্জার উপস্থিত থাকবেন।

উল্লেখ্য, ৮১ বছর বয়সী অ্যারিজোনার রিপাবলিকান সিনেটর এবং সাবেক ভিয়েতনাম যুদ্ধবন্দী ম্যাককেইন গত শনিবার ব্রেন ক্যানসারে মারা যান।

আরও পড়ুন :

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়