• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

পাকিস্তানের ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ইমরান খান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৮ আগস্ট ২০১৮, ১১:২৩ | আপডেট : ১৮ আগস্ট ২০১৮, ১১:৩৩
শপথ অনুষ্ঠানে ইমরান খান ও পাকিস্তান প্রেসিডেন্ট মামনুন হোসেন

পাকিস্তানের ২২তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারপার্সন ইমরান খান। আজ শনিবার সকালে ইসলামাবাদে প্রেসিডেন্ট হাউজে তাকে শপথবাক্য পাঠ করান পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট মামনুন হোসেন। খবর জিও টিভির।

অতিথিদের মধ্যে ইমরানের স্ত্রী বুশরা বিবি, ওয়াসিম আকরাম, অভিনেতা জাভেদ শেখ, পাঞ্জাবের গভর্নর মনোনীত চৌধুরী সারওয়ার, পাঞ্জাব অ্যাসেম্বলী স্পিকার পারভেইজ ইলাহি, রমিজ রাজা, তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী নাসির-উল-মুলক এবং পিটিআই নেতারা এই শপথ অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে প্রেসিডেন্ট হাউজে উপস্থিত ছিলেন। 

পাকিস্তান সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া, চেয়ারম্যান জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ কমিটি জুবেইর মাহমুদ হায়াত এবং চিফ অব এয়ার স্টাফ মার্শাল মুজাহিদ আনোয়ার খানও প্রেসিডেন্ট হাউজে হাজির ছিলেন। 

অতিথি, প্রেসিডেন্ট এবং প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত ইমরান খান আসন গ্রহণের পর জাতীয় সঙ্গীত বাজানোর মাধ্যমে শপথ পাঠের আয়োজন শুরু হয়। জাতীয় সঙ্গীত শেষে পবিত্র কুরআন থেকে তিলাওয়াত করা হয়। এরপরই ইমরান খানকে শপথ পাঠ করান প্রেসিডেন্ট হোসেন।
-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ইমরান চাননি তাই শপথ অনুষ্ঠানে থাকছেন না তার দুই ছেলে
-------------------------------------------------------

ভারতীয় ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিক বনে যাওয়া নভজিৎ সিং সিধু এই শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তিনি শুক্রবারই পাকিস্তান পৌঁছান। খেলার মাঠের বন্ধুর জন্য সঙ্গে করে নিয়ে এসেছেন কাশ্মীরি শালও।

এদিকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক কপিল দেব ‘ব্যক্তিগত কারণ’ দেখিয়ে এই শপথ অনুষ্ঠানে যোগ না দেয়ার কথা জানান। শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার দাওয়াত পেয়েছিলেন সুনীল গাভাস্কারও। কিন্তু ইংল্যান্ড ও ভারতের মধ্যকার চলমান টেস্ট সিরিজে ধারাভাষ্য দেয়ার কারণে শপথ অনুষ্ঠানে আসতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন গাভাস্কার।

এছাড়া ১৯৯২ সালে পাকিস্তানের বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্যদেরও এই শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছে।

এর আগে শুক্রবার পার্লামেন্টের জাতীয় পরিষদের ভোটাভুটিতে ১৭৬ ভোট পান ইমরান খান। তার প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন)-এর প্রার্থী শাহবাজ শরিফ পান ৯৬ ভোট।

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালে রাজনৈতিক দল গঠনের দুই দশকের বেশি সময় পর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলেন ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিক বনে যাওয়া ইমরান খান।

আরও পড়ুন : 

এ/ এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়