• ঢাকা রবিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৮, ৬ কার্তিক ১৪২৫

ভার্জিনিয়া সহিংসতার এক বছর

যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবাদী মিছিলে ২০, বিপক্ষে শত শত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৩ আগস্ট ২০১৮, ১০:২৮ | আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০১৮, ১১:০৭
ওয়াশিংটনে পুলিশি প্রহরায় শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের মিছিল

যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের শার্লটসভিলে সহিংসতার এক বছর পর শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীরা ওয়াশিংটনে হোয়াইট হাউজের বাইরে সমাবেশ করেছে। কিন্তু একইসময় অনুষ্ঠিত হওয়া শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদবিরোধী সমাবেশে প্রতিবাদকারীর সংখ্যা তাদের চেয়ে অনেক বেশি ছিল। খবর বিবিসির।

রোববারের ওই বিক্ষোভ সমাবেশে প্রায় ২০ জন চরম-ডানপন্থী সমর্থক অংশ নেয়। কিন্তু এই সমাবেশের একটু দূরেই শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ব ও বর্ণবাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেন শত শত মানুষ।

তবে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর অবস্থা এড়াতে সেখানে ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন করা হয়। শ্বেতাঙ্গ জাতীয়বাদীদের ‘ইউনাইট দ্য রাইট টু’ সমাবেশে প্রায় চারশ মানুষ অংশ নেয়ার কথা থাকলেও সেখানে প্রায় ২০ জন হাজির হয়।

শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের র‌্যালিটি যখন পুলিশি প্রহরায় হোয়াইট হাউজের সামনে লাফায়েট্টে স্কয়ার দিয়ে যাচ্ছিল তখন তাদের বিরোধী গ্রুপটি ‘লজ্জা’ এবং ‘আমার শহর থেকে বের হয়ে যাও’ স্লোগান দিতে থাকে।

--------------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : সিরিয়ায় অস্ত্র গুদাম বিস্ফোরণে ১২ শিশুসহ নিহত ৩৯
--------------------------------------------------------------------------

এদিকে পরস্পর দুটি সমাবেশ নিয়ে ওই এলাকায় ব্যাপক নিরাপত্তা নেয়া হয় এবং সমাবেশস্থলের আশপাশের এলাকায় অস্ত্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে কর্তৃপক্ষ। পরে ভারী বর্ষণের মধ্যে দুই ঘণ্টা পর শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের ওই সমাবেশ শেষ হয়। পরে আবারও পুলিশি প্রহরায় ওই এলাকা ত্যাগ করে সমাবেশকারী।

অন্যদিকে পেনসিলভানিয়া অ্যাভিনিউয়ের ফ্রিডম প্লাজায় শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদবিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বিক্ষোভকারীরা শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ব ও বর্ণবাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয় এবং ব্যানার প্রদর্শন করে।

উল্লেখ্য, গেল বছর ভার্জিনিয়ার শার্লটভিলে কয়েক দশকের মধ্যে অন্যতম বড় একটি সমাবেশ আয়োজন করে যুক্তরাষ্ট্রের শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীরা। একটি পাবলিক পার্ক থেকে মার্কিন গৃহযুদ্ধের সময় দাসপ্রথার সমর্থক কনফেডারেসির একজন জেনারেলের ভাস্কর্য সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ওই বিক্ষোভের আয়োজন করেছিল শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীরা। সেসময় শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদবিরোধী মিছিলে গাড়ি উঠিয়ে দেয়ার ঘটনায় হিদার হেয়ার (৩২) নামের একজন নিহত হয়। এরপর দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়লে আরও কয়েক ডজন লোক আহত হয়।

আরও পড়ুন  :

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়