• ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩ আশ্বিন ১৪২৫

১০০ কোটি ডলারে অনলাইন ফার্মেসি পিলপ্যাক কিনছে অ্যামাজন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ২৯ জুন ২০১৮, ১৮:০৩
ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজন ১০০ কোটি ডলারে অনলাইন ফার্মেসি পিলপ্যাক কিনে নিচ্ছে। আর অ্যামাজনের এমন পদক্ষেপে ব্যাহত হতে পারে ফার্মেসি ব্যবসা। যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ অঙ্গরাজ্যের সবকটিতেই পিলপ্যাকের ফার্মেসির লাইসেন্স রয়েছে। খবর সিএনএনের।

ডোজ অনুযায়ী ওষুধ ডেলিভারি দেয় পিলপ্যাক। ফলে একজন রোগী চাইলেই দিনে বেশ কয়েকবার ওষুধ গ্রহণ করতে পারেন।

অ্যামাজন এখন ফার্মেসি ব্যবসায় ঢুকতে চাচ্ছে বলে ব্যাপকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।  বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি অ্যামাজনের সিইও জেফ বেজোস জেপিমরগ্যান চেজ ও ওয়ারেন বাফেটের বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ের সঙ্গে মিলে একটি হেলফ কেয়ার কোম্পানি তৈরি করছেন।

এদিকে পিলপ্যাক কিনে নেয়ার ঘোষণায় অস্থিরতা দেখা দিয়েছে শেয়ার বাজারে। দিনের শুরুর লেনদেনে ড্রাগস্টোর চেইন সিভিএস-এর শেয়ার ৯ শতাংশ পড়ে গেছে। আর ওয়ালগ্রিনস বুটস অ্যালায়েন্সের শেয়ারদর পড়েছে ১০ শতাংশের বেশি।

রাইট এইড-এর শেয়ারদরও পড়ে গেছে, এমনকি দর নেমে গেছে বৃহত্তম ওষুধ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান কার্ডিনাল হেলথ ও আমেরিসোর্সবার্গেনেরও।

তবে কয়েক মাসে যখন খবর বের হয় যে, অ্যামাজন ওষুধ ব্যবসায় নামছে না তখন এই প্রতিষ্ঠান ও অন্যান্য হেলথ কেয়ার প্রতিষ্ঠানের শেয়ারদর বৃদ্ধি পায়। কিন্তু অ্যামাজনের সবশেষ ঘোষণায় এখন সবার মাথায় হাত।

তবে পিলপ্যাককে নিয়ে অ্যামাজনের কী পরিকল্পনা রয়েছে সেটি এখনও স্পষ্ট নয়। অর্থাৎ পিলপ্যাক কী অ্যামাজনের বৃহত্তর হেলথ কেয়ার প্লাটফর্মের সঙ্গে একীভূত হচ্ছে, নাকি অনলাইনভিত্তিক জুতা বিক্রেতা জাপ্পোস ও ভিডিও সাইট টুইচের মতো সহায়ক কোম্পানি হিসেবে স্বাধীনভাবে চলবে?

তবে পিলপ্যাককে শেষ পর্যন্ত সহায়ক স্বাধীন প্রতিষ্ঠান হিসেবেই রাখতে পারে পিলপ্যাক। এদিকে রেগুলেটরি অনুমোদন পেলেই পিলপ্যাককে অধিগ্রহণ করতে পারবে অ্যামাজন।

যদিও পুরো বিষয়টি নিয়ে ওয়ালগ্রিনস খুব একটা উদ্বিগ্ন। বৃহস্পতিবার সকালে প্রতিষ্ঠানের আর্থিক অবস্থা সম্পর্কিত এক বৈঠকে ওয়ালগ্রিনসের সিইও স্টেফানো পেসসিনা বলেন, ফার্মেসি ব্যবসা ‘ঘরে ঘরে ওষুধ বা নির্দিষ্ট প্যাকেজ পৌঁছে দেয়ার চেয়ে অনেক বেশি জটিল’।

পেসসিনা আরও বলেন, অবকাঠামোগত ওষুধের দোকানগুলো ‘সামনের দিনগুলোতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ’ হয়ে উঠবে।

অনলাইন ফার্মেসি পিলপ্যাক ও ক্যাপসুলের সঙ্গে প্রতিযোগিতা টিকে থাকতে সিভিএস ঘরে ঘরে ওষুধ পৌঁছে দেয়ার ঘোষণার এক সপ্তাহ পর পিলপ্যাক অধিগ্রহণের খবর বের হলো।

অবশ্য হেলথ কেয়ার ইন্ডাস্ট্রিতে এখন একত্রীভূত ম্যানিয়া চলছে। স্বাস্থ্যবিষয়ক বীমা প্রতিষ্ঠান অ্যাটনা কিনে নিচ্ছে সিভিএস। আরেকটি স্বাস্থ্যবিষয়ক বীমা প্রতিষ্ঠান সিগনা ফার্মেসি বেনিফিট ম্যানেজার এক্সপ্রেস স্ক্রিপ্টকে কিনে নিচ্ছে। দুটো কোম্পানিকেই এজন্য ঢালতে হচ্ছে প্রায় ৭০ বিলিয়ন ডলার।

গেলো বছরের শুরুর দিকে আইনি জটিলতায় দুটি মেগা বীমা কোম্পানি একীভূত হওয়া আটকে যাওয়ার পর এই ঘোষণা এলো। ওইসময় অ্যাটনা প্রতিদ্বন্দ্বী হুমানার সঙ্গে এবং অ্যানথেমের সঙ্গে একীভূত হওয়ার পরিকল্পনা ছিল সিগনার।

এ/ এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়