• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

কুষ্টিয়ায় অস্ত্র ও ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ছাত্রলীগ নেতা

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
|  ১৭ জুলাই ২০১৮, ১১:০৭ | আপডেট : ১৭ জুলাই ২০১৮, ১১:২৬
কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রাজিব আহম্মেদকে (২৮) ১৬০ পিস ইয়াবা, অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করেছে র‌্যাব। 

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার বিকেলে কুষ্টিয়া র‌্যাব-১২ খাজানগরে অভিযান চালিয়ে ১৬০ পিস ইয়াবা, ২৩ রাউন্ড শটগানের গুলি, অবৈধ ইয়ার গান ও পাঁচ শতাধিক ইয়ার গানের গুলি, বিভিন্ন আগ্নেয়াস্ত্রের অংশবিশেষ পায়।

রাজিব আহম্মেদ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার খাজানগর এলাকার চাউল ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর ছেলে।

রাজিব আহম্মেদ দীর্ঘদিন ধরে মাদক ও অস্ত্রের ব্যবসা করে আসছিল। এর আগেও মাদক ও অস্ত্রসহ দুইবার আটক হয়েছেন তিনি। কিন্তু তার বাবা কোটিপতি হওয়ায় তাকে বেশি সময় আটক থাকতে হয়নি।

এলাকাবাসী জানায়, বাবার গাড়িতে করেই কৌশলে বিভিন্ন জায়গায় মাদক সরবরাহ করত রাজিব। কিছুদিন আগে ঢাকার মহাখালীতে অস্ত্র ও ৮০০ পিস ফেনসিডিলসহ তার মাইক্রোবাস আটক করা হয়। পরে কোটিপতি বাবার টাকায় দ্রুতই ছাড়া পায় সে। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে আবার দাপটের সঙ্গে মাদক ও অস্ত্র ব্যবসা চালাতে থাকে।

সম্প্রতি মাদকের বিরুদ্ধে প্রশাসন যুদ্ধ ঘোষণা করলে খাজানগরের বেশ কয়েক জন রাগব বোয়াল গা ঢাকা দেয়। কিন্তু এই সুযোগে রাজিবের অস্ত্র ও মাদক ব্যবসা আরও জমজমাটভাবে চলতে থাকে। তিনি ক্ষমতাসীন দলের প্রভাব খাটিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের সামনেই প্রকাশ্যে অস্ত্র ও মাদকের ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন। অবশেষে গতকাল সোমবার র‌্যাব তাকে আটক করে। 

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ আহম্মেদের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি আরটিভি অনলাইনকে বলেন, সে যদি সত্যিকারের মাদক ব্যবসায়ী ও অস্ত্র ব্যবসায়ী হয়ে থাকে তবে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেবি/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়