• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

উদ্ধার হয়েছে নটরডেমের মেহরাবের লাশও

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
|  ১৬ জুলাই ২০১৮, ০৯:৩৮ | আপডেট : ১৬ জুলাই ২০১৮, ০৯:৫০
সেলফি তুলতে গিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মেঘনা নদীতে নিখোঁজ নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থী ইশরাকুল মেহরাব (২২) এর মরদেহও উদ্ধার হয়েছে। 

রোববার সন্ধ্যায় মেঘনা নদীর ভৈরব-আশুগঞ্জ দ্বিতীয় রেলসেতু এলাকায় তার মরদেহ পাওয়া যায়। এর আগে সকালে সানজিদা বিনতে তানভীর-প্রাপ্তির (২১) মরদেহও উদ্ধার উদ্ধার করা হয়। 

গতকাল সকাল থেকে নৌবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের দুটি ডুবরি দল তাদের উদ্ধারে কাজ করছিল। নৌ-বাহিনীর ১২ সদস্যের ও ফায়ার সার্ভিসের ৯ সদস্যের দুটি ইউনিটে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে উদ্ধার কাজ শুরু করে। 
--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১২ মাদক মামলার আসামি নিহত
--------------------------------------------------------

এর আগে শনিবার সকালে ঢাকা থেকে নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ও বিবিএ বিভাগের তৃতীয় বর্ষের সাত শিক্ষার্থী মেঘনা নদীতে ঘুরতে আসেন। তারা সারাদিন ইঞ্জিনের নৌকায় করে রেলসেতু ও আশপাশ এলাকায় ঘুরে বিকেলে আশুগঞ্জের চর সোনারামপুর এলাকায় যান। 

সেখানে জাতীয় গ্রীডলাইনের বৈদ্যুতিক টাওয়ারের কাছে হাঁটু পরিমাণ পানিতে নেমে হাতে হাত ধরে সেলফি তুলতে যান নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থীরা। এসময় একজন পা পিছলে অন্যজনের ওপর পড়লে সবাই পানিতে পড়ে যায়। এসময় স্রোতে ভেসে যাওয়ার সময় স্থানীয় জনগণ তাদের মধ্যে ৫ জনকে উদ্ধার করে। তবে সানজিদা বিনতে তানভীর (২১) ও মগবাজারের ইশরাকুল মেহরাব (২২) পানিতে ডুবে যায়। 

আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মৌসুমী বাইন হীরা জানান, নৌবাহিনীর একটি দল ও ফায়ার সার্ভিসের দুই ইউনিটের মাধ্যমে উদ্ধার কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

নৌবাহিনীর উদ্ধারকারী দলের সাব লেফটেনেন্ট মো. আক্কাস আলী জানান, রোববার সকাল থেকেই মেঘনা নদীর বিভিন্ন এলাকায় উদ্ধার অভিযান চালানো হয়। দুই জনকেই পাওয়ায় উদ্ধার অভিযান সম্পূর্ণভাবে শেষ হয়েছে। 

আরও পড়ুন  :

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়