• ঢাকা শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৪ ফাল্গুন ১৪২৫

খুলনায় নিহত ছাত্রলীগ যুবলীগ নেতাদের বাড়িতে শোকের মাতম

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
|  ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:০৬ | আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:১৫
খুলনায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত পাঁচ ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতার বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। মরদেহ গোপালগঞ্জে এসে পৌঁছালে নিহতদের পরিবার ও রাজনৈতিক অঙ্গনে নেমে আসে শোকের ছায়া। স্তব্ধ হয়ে ওঠে গোটা শহর। স্বজন হারানোর আহাজারি ও কান্নায় ভারি হয়ে উঠেছে নিহতদের বাড়ি ও আশপাশের এলাকা।

জানা গেছে, রোববার বন্ধু সাদিকের সদ্যকেনা প্রাইভেটকারে খুলনায় বেড়াতে যান পাঁচ বন্ধু। রাত পৌনে ১২টার দিকে খুলনা থেকে গোপালগঞ্জের উদ্দেশে ফেরার পথে রূপসা ব্রিজের কাছে লবণচরা এলাকায় পৌঁছালে একটি সিমেন্টবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় প্রাইভেটকারটির। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন পাঁচ বন্ধু।

নিহত পাঁচজন হলেন, গোপালগঞ্জ শহরের সবুজবাগের অ্যাডভোকেট আবদুল ওয়াদুদ মিয়ার ছেলে ও গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুব হাসান বাবু, একই এলাকার মৃত আলাউদ্দিন শিকদারের ছেলে ও গোপালগঞ্জ সদর যুবলীগের সহ-সভাপতি এস.এম সাদিকুল আলম সাদিক, শহরের থানা পাড়ার গাজী মিজানুর রহমান হিটুর ছেলে ও জেলা ছাত্রলীগের ছাত্র বৃত্তি বিষয়ক সম্পাদক ওয়ালিদ মাহমুদ উৎসব, শহরের কুয়াডাঙ্গা এলাকার রসুলপাড়ার আলমগীর হোসেন মোল্লার ছেলে ও জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক সাজু আহমেদ এবং চাঁদমারীর ওয়াহিদ গাজীর ছেলে ও জেলা ছাত্রলীগের সদস্য অনিমুল ইসলাম গাজী। এদের মধ্যে সাদিকুল গাড়ি চালাচ্ছিলেন।

শহরের থানাপাড়ায় গিয়ে দেখা যায়, দুর্ঘটনায় নিহত গাজী ওয়ালিদ মাহমুদ উৎসবের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে পাগলপ্রায় গোটা পরিবার। স্বজনদের আহাজারি আর কান্নায় থানাপাড়া এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জায়েদ মাহামুদ বাপি আরটিভি অনলাইনকে জানান, এমন একটি ঘটনা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছি না। মুহূর্তের মধ্যে তরতাজা পাঁচটি মানুষ চিরতরে হারিয়ে গেল।

গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলী খান আরটিভি অনলাইনকে জানান, বাদ জোহর নিহত ছাত্রলীগ ও যুবলীগের পাঁচ নেতার জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

আরও পড়ুন

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়