• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

ডলারের চাপে দাম কমছে স্বর্ণের

বিজনেস ডেস্ক
|  ২৮ এপ্রিল ২০১৮, ১৪:৪৭ | আপডেট : ২৮ এপ্রিল ২০১৮, ১৫:০১
বিশ্বের প্রধান প্রধান বেশ কয়েকটি মুদ্রার বিপরীতে এখন চড়া ডলার। গত কয়েকমাস ধরে বাড়ছে দর।  সেই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি বন্ডে সুদের হার বৃদ্ধি প্রভাব ফেলছে স্বর্ণবাজারে।

রয়টার্সসহ একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম বলছে, ডলার শক্তিশালী হওয়া ও বাড়তি সুদে ১০ বছর মেয়াদী বন্ডে বিনিয়োগ বেড়ে যাওয়ায় স্বর্ণে বিনিয়োগ কমেছে। এ কারণে পণ্যটির দাম গত সাড়ে ৫ সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্নে নেমে এসেছে।

শুক্রবার বিশ্ববাজারে জুনে সরবরাহ হতে যাওয়া এক আউন্স স্বর্ণ লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৩১৭ ডলারের কাছাকাছি; যা আগের দিনের তুলনায় প্রায় দশমিক ৪ শতাংশ কম।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাধারণত সরকারি বন্ডে সুদ বেড়ে গেলে বন্ডের বাজারে বিনিয়োগ বেড়ে যায়। উল্টো স্বর্ণে বিনিয়োগ কমে যায়। যার কারণে স্বর্ণের দাম কমছে।

মার্কিন বিনিয়োগ ব্যাংক ওয়েলথ ম্যানেজমেন্টের ঊর্ধ্বতন কৌশলী রব হাওয়ার্থ বলেন, বিনিয়োগকারীরা বন্ডে সুদের হার বেড়ে যাওয়াকে ইতিবাচক হিসেবে দেখেন। আর একে অনুসরণ করে ডলারের দাম বাড়ছে।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : কালবৈশাখী ঝড়ে চড়া কাঁচাবাজার
--------------------------------------------------------

মূলত আমেরিকা সরকারের ঋণে ক্রমবর্ধমান অর্থের যোগান এবং এ সপ্তাহে তেলের দর বেড়ে যাওয়ার জেরে মূল্যস্ফীতির চাপ নিয়ে এখন উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। এই উদ্বেগে ১০ বছর মেয়াদী বন্ডের সুদ ৩ শতাংশের ওপরে উঠেছে। যা গত ৪ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে স্বর্ণের দাম সমন্বয় করে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি- বাজুস। বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমলে দেশের বাজারেও কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সমিতির সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ১৮ মার্চ থেকে  ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি স্বর্ণের দাম রাখা হচ্ছে ৫০ হাজার ৯৫৪ টাকা। আর ২১ ক্যারেটের ভরি নেয়া হচ্ছে ৪৮ হাজার ৬৮০ টাকা। এছাড়া ১৮ ক্যারেট ৪৩ হাজার ৬০৮ টাকা এবং স্বণাতন পদ্ধতির প্রতি ভরি স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে ২৬ হাজার ৪০৯ টাকা।

বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দাম কমার ধারা বজায় থাকলে দেশের বাজারেও শিগগির দাম কমতে পারে।  

আরও পড়ুন : 

এসআর/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়