logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ভারত অধিনায়ককে নিয়ে পোস্ট দিয়েই উধাও জামালের ফেসবুক!

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১৩:১৮ | আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১৩:৪৭
jamal bhuiyan
ছবি- সংগৃহীত
ফুটবল পাগল কলকাতায় ভারতের জাতীয় দলকে রুখে দিয়েছে বাংলাদেশ। হাইভোল্টেজ এই ম্যাচে নামার আগেই লাল-সবুজের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া জানিয়েছিলেন, ভারতীয়দের মন ভাঙতেই এসেছে তার দল। যেমন কথা তেমন কাজ। র‌্যাংকিংয়ে ৮৩ ধাপ এগিয়ে থাকা দলটিকে কোনও ধরনের পাত্তা না দিয়েই একের পর এক আক্রমণ চালিয়েছে সফরকারীরা। এক পর্যায়ে সফলও হয়েছে বাংলাদেশ দল। ৪২তম মিনিটে গোল আদায় করে নেন মো. সাদ উদ্দিন। উৎপত্তি জামাল নিজেই। মাঝ মাঠ থেকে দলপতির করা লম্বা ফ্রি-কিকটি মাথার সাহায্যে প্রতিপক্ষের জালে জড়ান তরুণ ফরোয়ার্ড সাদ। সল্টলেকের ঐতিহ্যবাহী স্টেডিয়ামে তখন নিশ্চুপ নিরবতা। 

ম্যাচে ফেরার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালাতে থাকা ব্লু টাইগার্সদের বিপক্ষে পাল্টা আক্রমণও চালাতে দেখা যায় বেঙ্গল টাইগার্সদের। যদিও নির্ধারিত সময়ের দুই মিনিট আগে ভারতের ডিফেন্ডার আদিল খান দলকে সমতায় ফেরাতে সক্ষম হন। ম্যাচের সমাপ্তি হয় ১-১ গোলে।

বুধবার সন্ধ্যার দিকে দেশে ফিরে এসেছে জেমি ডে’র শিষ্যরা। বিশ্বকাপ ও এশিয়ানের বাছাইয়ের এই সফরে রয়েছে অনেক প্রাপ্তি। দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপ খ্যাত সাফ ফুটবলে দীর্ঘ দিন মূল দল পাঠাতো না ভারত। ক্রিকেটের মতো ফুটবলেও ‘আভিজাত্যের ক্লাবে’ পৌঁছানোর এই বাসনায় আঘাত হেনে দিয়েছে বাংলাদেশ! 

ম্যাচের পর মিডফিল্ডার জামাল তো সরল মনে শিকার করেন, ‘ভারতীয় দল আমাদেরকে অনেক সহজ প্রতিপক্ষ ভেবেছিল। আমরা নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করেছি। ভাগ্য সঙ্গে না থাকায় শেষ পর্যন্ত জয় তুলতে পারিনি।’

---------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : বিশ্বকাপে আশা টিকে রইল বাংলাদেশের
---------------------------------------------------------------------

এদিকে গত রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে ভারতের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীর সঙ্গে নিজের ছবি পোস্ট করেন সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের তারকা জামাল। ম্যাচ চলাকালীন ছবিটিতে দেখা যায়, কুস্তিগিরদের মতো দুই অধিনায়ক একে অপরকে ধরে আছেন।

দুষ্টুমি করে জামাল ক্যাপশনে উল্লেখ করেন, ‘কোচ বলেছিলেন প্রতিপক্ষের অধিনায়ককে দেখে রাখতে।’ এরপর একটি হাস্যকর ইমোজিও ব্যবহার করেন তিনি।

ইনস্টাগ্রামের ওই পোস্টটি নিজ অফিসিয়াল ফেসবুক পেজেও শেয়ার করেন লাল-সবুজের দলপতি। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই তার পেজ গায়েব হয়ে যায়।

এর পর ইনস্টাগ্রামের স্টোরি অপশনে এই বিষয়টি নিজেই নিশ্চিত করেন জামাল। বাংলাদেশ দলের এই মিডফিল্ডার উল্লেখ করেন, ‘আমার ফেসবুক পেজ তিন দিনের মধ্যেই ফেরত আসবে। ভারতের সমর্থকরা আমার পোস্টের মাধ্যমে আক্রান্ত হয়ে অভিযোগ করেছিলেন।’ এই স্টোরির নিচে একটি হাস্যকর ইমোজি দেন তিনি।

ওয়াই/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • খেলা এর সর্বশেষ
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়