• ঢাকা মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

নির্বাচনী বিচারকদের পুরো শক্তি প্রয়োগ করতে হবে: সিইসি

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৪:০৫ | আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৪:১৪
আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অপরাধ দমনে নির্বাচনী তদন্ত কমিটির (ইলেক্টোরাল ইনকোয়ারি কমিটি) বিচারকদের সম্পূর্ণ শক্তি নিয়োগ করতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা।

বুধবার নির্বাচন ভবনে তদন্ত কমিটির বিচারকদের প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে সিইসি এ নির্দেশনা দেন।

western সিইসি বলেন, ইতোমধ্যে নির্বাচন আচরণ বিধি ভঙ্গসহ নানা অপরাধের প্রতিকার না পাওয়ার অভিযোগ আসা শুরু করেছে নির্বাচন কমিশনে। মাঠ পর্যায়ে তদন্ত কমিটি নীরব রয়েছে। যে কোনও প্রার্থীর অভিযোগ আমলে নিয়ে ব্যবস্থা নিতে হবে।

তিনি বলেন, বিচারকদের সমন্বয়ে প্রতি জেলায় নির্বাচনী তদন্ত কমিটি গঠন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। যাদের নির্বাচন আচরণবিধি প্রতিপালনসহ অপরাধ আমলে নিয়ে বিচার কাজ করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সেই দায়িত্ব সুন্দরভাবে পালন করতে হবে। এ জন্য বিচারকদের আরও সক্রিয়ও হতে হবে।

এ সময় যুগ্ম জজ পর্যায়ের বিচারকদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটিগুলো তাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন না করায় সিইসি তাদের ওপর ক্ষোভও প্রকাশ করেন।

সিইসি বিচারকদের উদ্দেশে বলেন, তদন্ত কমিটির বিচারকদের দৃশ্যমান হয়ে তাদের নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে। আমরা প্রত্যেকদিন শত শত অভিযোগ পাই। কিন্তু এসব অভিযোগ আমাদের কাছে আসার কথা নয়। কারণ আপনারা সেখানে রয়েছেন। আমরা অভিযোগগুলো আপনাদের কাছে পাঠিয়ে দেবো। কিন্তু প্রয়োজন ছিল, অভিযোগগুলো সরাসরি আপনাদের কাছে যাবে, কিন্তু সেটা যায় না।

তিনি বলেন, আপনাদের ভিজিবল হতে হবে। তার মানে এখন পর্যন্ত কিন্তু ভিজিবল হননি। এর কারণ আপনাদের যে এতো বড় দায়িত্ব আছে, সে সম্পর্কে মানুষ ওয়াকিবহাল না। ওকাকিবহাল হবেন তখনই, যখন আপনারা ভাইব্রেন্ট হবেন, ভিজিবল হবেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন চার কমিশনার মাহবুব তালুকদার, রফিকৃল ইসলাম, কবিতা খানম ও ব্রিগে. জেনারেল (অব:) শাহাদত হোসেন চৌধুরী ও ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

আরও পড়ুন : 

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়