Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

অপমান সইতে না পেরে এরদোয়ানের দেহরক্ষীর আত্মহত্যা

Erdogan bodyguard commits suicide, cites insults and threats in note
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তায়েপ এরদোয়ান

অপমান এবং চাকরি হারানোর ভয়ের বোঝা আর টানতে পারছিলেন না। তাই শেষ পর্যন্ত আত্মহত্যারই পথ বেছে নিলেন তিনি। তুর্কি প্রেসিডেন্ট রেচেপ তায়েপ এরদোয়ানের সুরক্ষা ইউনিটের ওই দেহরক্ষীর আত্মহত্যার ঘটনায় তোলপাড় পড়ে গেছে।

স্থানীয় কুমহুরিয়েত পত্রিকা জানিয়েছে, ওই দেহরক্ষীর নাম মেহমেত আলি বুলুত। তার দেহের পাশ থেকে একটি চিঠি পাওয়ার পর এটিকে আত্মহত্যা হিসেবে ঘোষণা করা হয়। এর আগে মেহমেত কাজে না আসলে তার সহকর্মীরা তাকে ফোন দেয়। কিন্তু তার মোবাইল ফোন বন্ধ পায় তারা।

আরও পড়ুনঃ আজানের কারণে ঘুমাতে পারছেন না বলে অভিযোগ জানালেন উপাচার্য

মেহমেতের ওই চিঠিটি আহভাল পত্রিকায় প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে মেহমেত অভিযোগ করেন, আপনি যদি আপনার কর্মীদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতেন এবং জিজ্ঞাসা করতেন তারা কেমন আছে তাহলে খুশি হতাম। কিন্তু আপনি আপনার কর্মীদের অপমান করেন, হুমকি দেন, চাকরিচ্যুত, লজ্জিত এবং মিথ্যাবাদী প্রমাণিত করেন।

মেহমেত আরও লিখেন, প্রত্যেকটা মানুষেরই সম্মান আছে। আমি এমন ভাষা হজম করতে পারিনি। মেহমেতকে নিয়ে এ বছর এরদোয়ানের তিনজন দেহরক্ষী আত্মহত্যা করলেন। আগে আত্মহত্যা করা দুজন হচ্ছেন হালিল আক্কাইয়া এবং এথেম দাগদেভিরেন।

RTV Drama
RTVPLUS