Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

আজানের কারণে ঘুমাতে পারছেন না বলে অভিযোগ জানালেন উপাচার্য

allahabad university vc writes letter to prayagraj dm seeks ban on loudspeaker for morning azaan
সংগৃহীত

ফজরের সময় মাইকে আজানের সুরে তার ঘুমের প্রচণ্ড ব্যাঘাত ঘটে। এমনকি শুরু হয় মাথাব্যথাও। তাই অবিলম্বে তার বাড়ির কাছে অবস্থিত মসজিদে মাইকে আজান বন্ধের দাবি জানিয়েছেন। এজন্য জেলা প্রশাসককে চিঠিও দিয়েছেন ভারতের উত্তরপ্রদেশের এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সঙ্গীতা শ্রীবাস্তব।

আরও পড়ুন : মোদিকে বাংলাদেশে ঢুকতে না দেয়ার ঘোষণা দিলেন তারা

চিঠি পাওয়ার পর জেলা প্রশাসক তাকে আশ্বস্ত করেছেন যে, আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ নেয়া হবে। তবে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় বিতর্ক শুরু হয়েছে। অনেকেই মাইকে আজান বন্ধে মত দিয়েছে। শোনা যাচ্ছে উল্টো কথাও। অনেকেই বলছে, রাজ্য ক্ষমতায় বিজেপি আসার পর থেকেই এগুলো ঘটছে।

জেলা প্রশাসক ভানুচন্দ্র গোস্বামীর কাছে লেখা চিঠিতে সঙ্গীতা বলেন, আজান থেমে গেলেও আর ঘুমাতে পারেন না। মাথা ব্যথা করে। সারাদিনের কাজেও এর প্রভাব পড়ে। তবে তিনি কোনও ধর্মের বিরোধী নন বলেও জানান সঙ্গীতা।

আরও পড়ুন: ভাগ্নের প্রেমিকাকে শয্যাসঙ্গী করতে বাধ্য হয় মামা!

কিন্তু রমজানের সময় ভোর ৪টা থেকে মসজিদের মাইকে যেভাবে ঘোষণা শুরু হয়, তাতে এলাকার মানুষদের অসুবিধা হয় বলে চিঠিতে লিখেছেন এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। ওই চিঠির কপি ইতোমধ্যেই ডিভিশনাল কমিশনারের কাছেও পাঠিয়েছেন তিনি।

এদিকে সঙ্গীতার এমন অভিযোগ ঘিরে বিতর্ক শুরু হয়েছে। অযোধ্যার সন্ন্যাসী ও পুরোহিতরা তাকে সমর্থন করছেন। তাদের দাবি, জোরে নয় বরং মাইকে যদি মাঝারি শব্দে আজান দেয়া হয় তাহলে কারও অসুবিধেই হবে না। সমর্থন দিয়েছে বিজেপিও।

আরও পড়ুন : ক্যামেরা অন রেখেই অন্তরঙ্গ ওম, লজ্জায় মুখ লুকালেন স্ত্রী (ভিডিও)

RTV Drama
RTVPLUS