logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

ফেসবুকে প্রেম, অতঃপর বিয়ের প্রলোভনে টানা ৭ দিন ধর্ষণ!

ফেসবুকে প্রেম, অতঃপর বিয়ের প্রলোভনে টানা ৭ দিন ধর্ষণ
ফাইল ছবি
ফেসবুকে সবুজ মিয়া নামের এক যুবকের সঙ্গে তরুণীর পরিচয়, সেই সূত্রে প্রেমে জড়িয়ে পড়া, অতঃপর বিয়ের প্রলোভনের ধর্ষণ। সবশেষে সেই সম্পর্ক মোড় নেয় ধর্ষণ মামলায়। ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানীর সবুজবাগ থানা এলাকায়। যার প্রেক্ষিতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (১)/৩০ ধারায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে ধর্ষণ এবং ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগ এনে সবুজবাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন ওই তরুণী।

আজ রোববার (১১ অক্টোবর) দুপুরে মামলার বাদী তরুণীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে। একই সময়ে মামলায় অভিযুক্ত সবুজ মিয়া (৩২) ও তার সহযোগী আব্দুস সামাদকে (৩৫) গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়েছে সবুজবাগ থানা পুলিশ।

আরও পড়ুনঃ

ফেসবুকে প্রেম, অতঃপর বিয়ের প্রলোভনে টানা ৭ দিন ধর্ষণ!

বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে বাসের ধাক্কা, দুই পর্যটক নিহত

এ বিষয়ে সবুজবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার নাছির উদ্দিন আরটিভি নিউজকে জানান, গত ৬ মাস আগে ওই তরুণীর সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় হয় সবুজ মিয়ার। এর পরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক হয়। গত ৪ অক্টোবর সবুজ মিয়া বিয়ের জন্য পূর্ব বাসাবো এলাকায় নিজ বাসায় ডেকে আনে ওই তরুণীকে। কিন্তু বিয়ে না করে ১০ অক্টোবর পর্যন্ত সবুজ ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। পরে তরুণী গত শনিবার রাতে সবুজ মিয়া ও তার সহযোগী সামাদের নামে মামলা দায়ের করে। রাতেই আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

কেএফ/এসএস

RTVPLUS