• ঢাকা সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

দুই বোনের কণ্ঠে বাবার গান

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১২ আগস্ট ২০১৮, ১৫:৪০ | আপডেট : ১২ আগস্ট ২০১৮, ১৬:১৮
ছবি: সংগৃহীত
জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী মাহমুদুন্নবী আধুনিক বাংলা গান ও চলচিত্রের গানে যে নতুন মাত্রা সঞ্চার করেছিলেন তা আজও বাংলা ভাষাভাষি অগণিত শ্রোতার হৃদয়কে দোলা দেয়। কালজয়ী এই শিল্পীর গাওয়া অসংখ্য গান থেকে নির্বাচিত কয়েকটি গানে এবার কণ্ঠ দিয়েছেন তার দুই কন্যা ফাহমিদা নবী ও সামিনা চৌধুরী।

মাহমুদুন্নবী স্মরণে অডিও অ্যালবাটির নাম রাখা হয়েছে ‘আমার গানের প্রান্তে’। এই অ্যালবামটিতে গান রয়েছে ১০টি। ফাহমিদা নবী কন্ঠ দিয়েছেন ‘মনে মনের যে কথা’, ‘তুমি কখন এসে দাঁড়িয়ে আছ’, ‘তোমার দুহাত দিয়ে অন্ধ করে দাও’ ও ‘বড় একা একা লাগে’গানগুলোতে।

অন্যদিকে সামিনা চৌধুরী গেয়েছেন ‘ওগো মোর মধুমিতা’, ‘আমি আগুনকে ভয় পাই না’, ‘অনেক সেধেছি সুর’ ও ‘তুমি যে আমার কবিতা’ গানগুলো। এছাড়া দ্বৈতকণ্ঠে তারা গেয়েছেন ‘দিয়েছি মায়ের স্নেহ’ এবং ‘সুরের ভুবনে আমি আজও পথচারী’ গান দুটি। যন্ত্রানুষঙ্গ পরিচালনা করেছেন আশু চক্রবর্তী।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ভারতের চেন্নাইয়ে প্রশংসিত মৌলি
-------------------------------------------------------

ফাহমিদা নবী বলেন, কিংবদন্তি শিল্পী মাহমুদুন্নবীর গান গাওয়া অনেক বড় দায়িত্বের। তারপর তিনি আমার বাবা। তার প্রতি ভালোবাসা ভক্তকুলের অন্যরকম। বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের এই শ্রদ্ধা নিবেদনকে সম্মান জানাই। তাদের জন্য আমরা দুই বোন বাবার কিছু গান শ্রোতার কাছে তুলে দিলাম।

সামিনা চৌধুরী- মাহমুদুন্নবীর গান গাইবার লোভ বা সাহস যাই বলি না কেন, তা করলাম দু’বোন মিলে শুধু বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের সুন্দর একটি ইচ্ছাপূরণ করতে। আব্বার স্বর্ণখচিত হাজারো গান থেকে কিছু গান প্রিয় শ্রোতাদের হাতে তুলে দেবার দুঃসাহস করলাম।

অ্যালবামটি পাওয়া যাবে- আজিজ সুপার মার্কেটে সুরের মেলা, প্যাপিরাস; শাহবাগে পাঠক সমাবেশ; নিউমার্কেট-সংলগ্ন গানের ডালি; এলিফ্যান্ট রোডে গানের ভুবন, সুর কল্লোল; বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্সে গীতাঞ্জলি; বনানী ও ধানমন্ডি অরণ্য ক্রাফট্স; বেঙ্গল বই, ১/৩ লালমাটিয়া, ব্লক ডি; ধানমন্ডি রাপা প্লাজা হলিউড; বেইলি রোডে সাগর পাবলিশার্স; গুলশান-১ কুমুদিনী হ্যান্ডিক্রাফট্স; চট্টগ্রামে বাতিঘর ও লালখান বাজারে রাগেশ্রী; সিলেটে বইপত্র জিন্দাবাজার ও অন্যান্য বিক্রয়কেন্দ্রে।

পিআর/এম

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়