• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

পাথরঘাটায় খননযন্ত্রের চাপায় ১৩ মাসের শিশুর মৃত্যু

বরগুনা প্রতিনিধি
|  ১৫ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৩১ | আপডেট : ১৫ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৪৪
বরগুনার পাথরঘাটায় কালমেঘা ইউনিয়নের দক্ষিণ কুপধন গ্রামে তমা কনস্ট্রাকশনের নির্মাণাধীন বাঁধের খননযন্ত্রের(বেকু মেশিন) নিচে চাপা পরে আব্দুল্লাহ নামের ১৩ মাসের এক শিশু মারা গেছে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। কালমেঘা এলাকাতে তমা কনস্ট্রাকশন দীর্ঘদিন ধরে বেড়িবাঁধের কাজ করছে। ওই বাঁধের কাজে বেকু মেশিন বেড়িবাঁধে যাচ্ছিল। বেড়িবাঁধের পাশেই বসত ঘর থেকে ১৩ মাসের শিশুটি হামাগুরি দিয়ে বেড়িবাঁধে ওঠার সময় বেকু মেশিনের নিচে পিষ্ট হয়ে শিশুটি মাথা থেতলে গিয়ে তাৎক্ষনিক মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

স্থানীয়রা জানায়, এই বেকুওয়ালারা একদিকে যেমন বেপরোয়া তেমনি তমা গ্রুপের সিকিউরিটি ব্যবস্থাও নাজুক। বরাবরই বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসী অভিযোগ করে আসছেন। কিন্তু গুরুত্ব দেয়নি তমা গ্রুপ।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ভুল অপারেশনে শিশুর মৃত্যু, পলাতক ডাক্তার-ক্লিনিক মালিক
--------------------------------------------------------

ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ মোস্তফা মিয়া জানান, এর আগেও বেকুর ধাক্কায় পা হারায় একজন এবং তারা কর্ম এলাকায় লাল ফিতা দেয়ার কথা থাকলেও তা তমা গ্রুপ দেয়নি। অসাবধানতার কারণেই একের পর এক দুর্ঘটনা ঘটছে।

দুর্ঘটনার পরপর এলাকাবাসীর রোশানলে পরলে, তমা গ্রুপের কর্মকর্তা কর্মচারীরা ঐ স্থান থেকে পালিয়ে পাথরঘাটা শহরে চলে যায়।

শিশুটির মা মোর্শেদা জানান, আমি পানি আনতে গিয়েছিলাম তখন আব্দুল্লাহকে ঘরের সামনে দেখে যাই এবং বেকু মেশিনটি তখন দেখেছি রাস্তার পাশে থামানো। আমি নদী থেকে পানি নিয়ে ঘরে আসি তখনও মেশিনটি রাস্তায় থামানো দেখেছি। এর পর বাহিরে গিয়ে দেখি ছেলেটি পরে আছে, মাথা মুখ চ্যাপটা হয়ে আছে।

পাথরঘাটা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশের পক্ষ ওসি মোল্লা খবির উদ্দীন আহম্মেদ জানান, পুলিশের পক্ষ থেকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে, শিশুটির অভিভাবক যেভাবে আইনি সহযোগিতা চাইবে তা করা হবে।

আরও পড়ুন :

জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়