• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

গাইবান্ধায় দুই দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
|  ১০ মার্চ ২০১৮, ১৬:২৮ | আপডেট : ১০ মার্চ ২০১৮, ২৩:৪৮
গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় নসিমন-বাস সংঘর্ষ ও নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক উল্টে যাওয়ার পৃথক ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১ জনে দাঁড়িয়েছে। এ দুটি ঘটনায় আহত হয়েছেন প্রায় ১৫ জন। 

পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. তোফাজ্জল হোসেন বলেন, নসিমন-বাস সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ জন ও নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক উল্টে যাওয়ার ঘটনায় সাত জন মারা গেছেন।

পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল আলম জানান, আজ দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা থেকে লোহার এ্যাঙ্গেল বোঝাই একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট ১৮-৪১৮৪) রংপুর যাবার পথে পলাশবাড়ী উপজেলার জুনদহ নামক জায়গায় পৌঁছলে এক মোটরসাইকেল আরোহীকে বাঁচাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাকটি রাস্তার পাশে উল্টে যায়। এসময় ট্রাকের উপরে থাকা অন্তত ২০ জন যাত্রীর মধ্যে ৫ ঘটনাস্থলে নিহত হন। পরে আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতাল ও ক্লিনিকে পাঠানো হলে সেখানে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়।

পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, ট্রাক উল্টে যাওয়ার ঘটনায় নিহত ৭ জনের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে তাদের বাড়ি রংপুর, নীলফামারী ও দিনাজপুর জেলায়। নিহতের মরদেহ গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়া প্রত্যেক নিহতের পরিবারের সদস্যকে ২০ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। 

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গাইবান্ধার পলাশবাড়ী  উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস ও নসিমনের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৪ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১০ জন। 

পুলিশ জানায়, রংপুর থেকে গোবিন্দগঞ্জগামী এসএন পরিবহন নামের একটি লোকাল গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পলাশবাড়ীর দক্ষিণ বন্দর এলাকায় সরকার পাম্পের সামনে রাস্তার পাশে দাড়িয়ে থাকা রাজমিস্ত্রি বহনকারী একটি নসিমনকে ধাক্কা মারলে ১৯ জন যাত্রীর মধ্যে ঘটনাস্থলেই ৩ জন নিহত হন। পরে আহতদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও একজন শ্রমিক মারা যান। 

নিহতদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় জানা গেছে, তারা হলেন
গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার রুদ্রনগর গ্রামের রাজু, জাকির ও খসরু। তারা সবাই রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন। তাদের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: 

এসএস 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়