• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

আইএস সংশ্লিষ্টতায় যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় বাংলাদেশি গ্রুপ

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ২২:০৪ | আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৯:৫৭
বৈশ্বিক সন্ত্রাসী তালিকায় বাংলাদেশি গ্রুপের নাম লিপিবদ্ধ করেছে মার্কিন ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট। মঙ্গলবার ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে দুই ব্যক্তি ও সাতটি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। সেখানে বাংলাদেশি গ্রুপও রয়েছে। খবর রয়টার্স, নিউ ইয়র্ক টাইমসের।

ট্রেজারি ডিপার্টমেন্টের অফিস অব ফরেন অ্যাসেটস কন্ট্রোল (ওএফএসি) জানিয়েছে, তারা নাইজেরিয়ার আল-বারনাওয়ি ও সোমালিয়া মাহাদ মাওলিমর নাম ওই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে। একইসঙ্গে বাংলাদেশ, মিশর, ফিলিপিন্স, সোমালিয়া, নাইজেরিয়া ও তিউনিসিয়ার সাতটি গ্রুপের নামও ওই নিষেধাজ্ঞা তালিকায় রয়েছে।

তারা বলছে, আইসিস-বাংলাদেশ, আইসিস-মিশর, আইসিস-ফিলিপিন্স, আইসিস-সোমালিয়া, আইসিস-পশ্চিম আফ্রিকা, জুন্দ আল-খলিফা-তিউনিসিয়া (আইসিস-তিউনিসিয়া নামেও পরিচিত) ও ফিলিপিন্সভিত্তিক মাওতে গ্রুপ (ইসলামিক স্টেট অব লানাও নামেও পরিচিত)।

এদিকে আলাদা এক বিবৃতিতে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর জানিয়েছে, আগে থেকেই নিষেধাজ্ঞা থাকা ৪০ জন ইসলামিক নেতা ও তাদের সহযোগী সংগঠনের সঙ্গে নতুন করে যোগ হওয়া এই ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ ব্যবস্থায় প্রবেশ করতে পারবে না।

ওই বিবৃতিতে তারা বলছে, ইসলামিক স্টেটকে পরাজিত করার যে ব্যাপক পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে এটি তারই অংশ। সেখানে বলা হচ্ছে, ইসলামিক স্টেটকে পরাজিত করতে ৭৫ সদস্য বিশিষ্ট গ্লোবাল কোয়ালিশন তাদের লক্ষ্যে পৌঁছতে গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য পেয়েছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, আইএসকে ধ্বংস করতে তাদের নিরাপদ আস্তানা, বিদেশি যোদ্ধা নিয়োগ, অর্থ প্রবাহ বন্ধ, ইন্টারনেট ও সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়ানো রোধ এবং ইরাক ও সিরিয়ার মুক্ত হওয়া স্থানে বাস্তুচ্যুতদের ফিরে যাওয়া এবং ঘরবাড়ি পুনর্নির্মাণে সহায়তা করতেই এই প্রচেষ্টা।

আরও পড়ুন:

এ/এসএস 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়