logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬

কার হাতে উঠবে টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার?

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৪ জুলাই ২০১৯, ১৪:৩৯ | আপডেট : ১৪ জুলাই ২০১৯, ১৭:১৮
সাকিব আল হাসান
সাকিব আল হাসান
গোটা ক্রিকেট দুনিয়ার চোখ এখন লর্ডসের ফাইনালে। কয়েক ঘণ্টা পরেই হয়ে যাবে শিরোপা নির্ধারণ। দীর্ঘ ৪৮ দিনের বিশাল এই কর্মযজ্ঞের পর্দা নামবে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের ফাইনাল ম্যাচ দিয়ে। শিরোপা যাবে কার ঘরে সেটা বাংলাদেশীদের কাছে যতটানা গুরুত্ব পাচ্ছে তার থেকে কয়েকগুণ বেশি গুরুত্বের, সাকিব কি টুর্নামেন্ট সেরা হবেন?

bestelectronics
বাংলাদেশ বিশ্বকাপ থেকে সেমি-ফাইনালের আগে ছিটকে গেলেও সাকিবে টিকে আছে বাংলাদেশের নাম। এরই মধ্যে সাকিব আমন্ত্রণ পেয়েছেন ফাইনাল ম্যাচ দেখার। এ নিয়ে গুঞ্জন, তবে কি সাকিবই পাচ্ছেন সেরার পুরস্কার?

আসলে এর মানে সেটা না। সাকিব আইসিসি থেকে চিঠি পেয়েছেন ঠিকই তবে সেটার সাথে টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কারের কোনো সম্পর্ক নেই। তিনি দাওয়াত পেয়েছেন এমসিসির সদস্য হিসেবে এবং তার সাথে উপস্থিত থাকবেন কুমার সাঙ্গাকারা ও শচীন টেন্ডুলকার।

আর যদি এক কাজে দুই কাজ হয়ে যায় শেষ পর্যন্ত তাহলে সেটা হবে বাংলাদেশের জন্য অনন্য, অসাধারণ কিছু।

গোটা টুর্নামেন্টে সাকিব এমনিতেই ছিলেন অনন্য ব্যাটে-বলে। এবারের বিশ্বকাপ যেন তার জন্যই। বলাই যায়, ক্যারিয়ারে নিজের সেরা সময়টা কাটিয়েছেন ২০১৯ বিশ্বকাপে।

নয় ম্যাচের একটি বৃষ্টিতে ভেসে গেলেও বাকি ৮ ম্যাচে করেছেন ৬০৬ রান। আছে ১১টি উইকেটও। পাঁচটি অর্ধশতকের সঙ্গে আছে দুটি শতকও।

এছাড়া এক আসরে সাতটি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস খেলে ছুঁয়ে ফেলেছেন ভারতীয় কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারের রেকর্ডও। এক ম্যাচে ৪১ রানে আউট না হলে ছাড়িয়ে যেতেন শচীনকেও।

এক বিশ্বকাপে যেখানে কারও ৪০০ রান আর ১০ উইকেট নেয়ার রেকর্ড ছিল না, সেখানে সাকিব করেছেন ৬০৬ রান আর নিয়েছেন ১১টি উইকেট।

সাকিব তাই এখানেই এগিয়ে রেখেছেন টুর্নামেন্ট সেরা হবার দৌড়ে। শেষ পর্যন্ত কি হয় সেটাই দেখার বিষয়।

সাকিব ছাড়াও এই পুরস্কারের তালিকায় আছেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। অস্ট্রেলীয় গতি তারকা মিচেল স্টার্ক, ইংলিশ পেসার জোফরা আর্চার ও কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

রোহিত শর্মা ৯ ম্যাচে ৮১ গড়ে করেছেন ৬৪৮ রান। এই বিশ্বকাপে রোহিত এতটাই ধারাবাহিক ছিলেন যে, পাঁচটি শতক হাঁকিয়ে ভেঙেছেন গত আসরে চারটি শতক হাঁকানো কুমার সাঙ্গাকারার রেকর্ড। এছাড়াও আছে একটি অর্ধশতকও।

মিচেল স্টার্ক নিয়েছেন ১০ ম্যাচে ১৮.৫৯ গড়ে ২৭টি উইকেট। এক আসরে এর আগে ২০০৩ বিশ্বকাপে স্বদেশী গ্লেন ম্যাকগ্রা নিয়েছিলেন ২৪ উইকেট।

গত বিশ্বকাপে ২২ উইকেট নিয়েও হয়েছিলেন ট্রেন্ট বোল্টের সঙ্গে যৌথভাবে টুর্নামেন্ট সেরা। এবারের বিশ্বকাপে দুইবার করে নিয়েছেন চার ও পাঁচটি করে উইকেট। এখানেই স্টার্ক এগিয়ে গেছেন সিরিজ সেরা হবার দৌড়ে।

ইংলিশ পেসার জোফরা আর্চার এই বিশ্বকাপের অন্যতম নাম। যাকে কিনা এই বিশ্বকাপে খেলাবে কি না ইংল্যান্ড, এ নিয়ে ছিল ধন্ধ। অথচ সে কিনা ছাড়িয়ে গেছে সবাইকে। তার দল উঠেছে ফাইনালে। এর আগে ১০ ম্যাচে ২২.০৫ গড়ে আর্চারের উইকেট সংখ্যা ১৯টি। উইকেট বিবেচনা করলেই হবে না, ডট বল দেয়ার দিকেও সবার আগে আর্চারের নাম।

কেন উইলিয়ামসনের হাত ধরেই ফাইনালে নিউজিল্যান্ড। অনেকের চোখে এই বিশ্বকাপের সেরা অধিনায়ক তিনি। সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন দলকে। ব্যাট হাতে এতটাই দুর্দান্ত ছিলেন তিনি, ৯ ম্যাচে ৮ ইনিংস ব্যাট করে ৯১.৩৩ গড়ে করেছেন ৫৪৮ রান।

এমআর/পি

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়