logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬
evaly

ফাইনালে যেতে ভারতের দরকার ২৪০ রান

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১০ জুলাই ২০১৯, ১৫:৫৭ | আপডেট : ১১ জুলাই ২০১৯, ১২:০০
জাসপ্রিত ভুমরাহ
ছবি- সংগৃহীত
দুইদিনে এক ম্যাচ। ভাগ্যিস রিজার্ভ-ডে ছিল বলেই। এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষের নাম বৃষ্টি। সেমি-ফাইনালের আগে চারটা ম্যাচ ভেসে যায় বৃষ্টিতে। যার বড় মূল্য দিতে হয়েছে বোধহয় বাংলাদেশকে। ৬ জুলাই ওল্ড ট্রাফোর্ডে শুরু হয় প্রথম সেমি-ফাইনাল। এই ম্যাচ কি আদৌ শেষ হবে তার নিশ্চয়তা কি!

গতকাল ৪৬ ওভার ১ বলের সময় ২১১ রানে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। ওল্ড ট্রাফোর্ডে টস জয়ী নিউজিল্যান্ড ব্যাটিং নিলেও শুরুটা এতই মন্থর হয় যে, প্রথম ১০ ওভারে রান আসে মাত্র ২৭। ইনিংসের ৩ ওভার ৩ বলের সময় দলীয় ১ রানে সাজঘরে ফেরেন মার্টিন গাপটিল।

এর পর দলীয় ৬৯ রানের মাথায় আরেক উদ্বোধনী হ্যানরি নিকোলসের (২৮) উইকেট হারায় কিউইরা। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে নিকোলস আর কেন উইলিয়ামসন যোগ করেন ৬৮ রান।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে রস টেলর আর উইলিয়ামসন প্রতিরোধ গড়লেও এগুতে পারেননি জাসপ্রিত ভুমরাহ, রবীন্দ্র জাদেযাদের বোলিং তোপে।

ব্যক্তিগত ৬৭ রানের মাথায় যুজবেন্দ্র চাহালের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন কিউই অধিনায়ক। এরপর বাকি ব্যাটসম্যানদের ছয় ব্যাটসম্যানের কেউই পার করতে পারেননি কুড়ি রানের কোটা। এর মাঝে রস টেলর তুলে নেন অর্ধশতক।

রিজার্ভ-ডের সকালে ব্যাট করতে নেমে ৪৭ ওভারের শেষ বলে ৭৪ রান করেন ফেরেন টেলরও।

টেলরের বিদায়ের পর কিউইদের ইনিংস আর বেশিদূর গড়ায়নি। থেমে যেতে হয়েছে ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৩৯ রানেই। 
ভারতের হয়ে ভুবনেশ্বর কুমার নেন ৩টি উইকেট, এছাড়া ১টি করে উইকেট নেন ভুমরাহ, হার্দিক পান্ডিয়া, যাদেজা ও চাহাল।

এমআর/এসএস

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়