logo
  • ঢাকা রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬
evaly

মোস্তাফিজের পাঁচে ‘পাঁচশ’ করতে পারেনি পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৫ জুলাই ২০১৯, ১৯:২৯ | আপডেট : ০৫ জুলাই ২০১৯, ২০:৫৯
BANvIND- rtvonline
ছবি- সংগৃহীত
লর্ডসে পাকিস্তানের বাঁচা-মরার ম্যাচ। এই ম্যাচে বাংলাদেশকে অন্তত ৩১১ বা ৩১৬ রানে হারাতে হবে। তাতে নিশ্চিত হবে ’৯২ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়নদের সেমিফাইনাল। নইলে সেমির আগেই ছিটকে পড়তে হবে সরফরাজদের।

লর্ডসে বাংলাদেশ টস জিতে ব্যাটিং নিলেই আর কোনও সমীকরণ থাকত না পাকিস্তানের সামনে। এই দুর্ভাগ্যে পড়তে হয়নি তাদের। টস জিতে নিয়েছে ব্যাটিং।

গতকাল সরফরাজ আহমেদ বলেছিলেন, পাকিস্তান ৫০০ বা ৬০০ রানও করতে পারে। তাদের দ্বারা অসম্ভব কিছু নেই। বড় লক্ষ্যে নেমে আজ সেভাবেই ব্যাটিং শুরু করে পাকিস্তানের টপ-অর্ডার।

দলের নিয়মিত ওপেনার ফখর জামানকে ৭ ওভার ২ বলের মাথায় ১৩ রানে ফেরান সাইফউদ্দিন। এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ১৫৭ রান যোগ করেন বাবর আজম আর ইমাম উল হক।

দ্রুত রান তুলতে থাকেন দুজনই। চাপে পড়ে যাওয়া বাংলাদেশ দলকে আবারও ম্যাচে ফেরান সাইফউদ্দিনই। ৯৮ বলে ৯৬ রান করা বাবর আজমকে ফেরান তিনি।

ইমামও লড়ছিলেন সমানে সমান। বাবর না পারলেও ইমাম পূর্ণ করেন শতক। ১০০ বলে ১০০ করেই হিট আউট হয়ে ফেরেন সাজঘরে। মোস্তাফিজের বল খেলতে গিয়ে স্ট্যাম্পে পা লেগে যায় ইমামের।

এরপর হাফিজকে ২৭ রানে ফেরান মেহেদী মিরাজ। হাতে ব্যথা পেয়ে ২ রান করে মাঠ ছাড়েন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। এখানেই থেমে যায় পাকিস্তানের ৫০০ রান করার স্বপ্ন।

এরপর ওহাব রিয়াজ ২, শাদাব খান ১ রানে বিদায়ের পর ইমাদ ওয়াশিমের ৪৩ আর মোহাম্মদ আমীরের ৮ রানে ভর করে ৫০ ওভারে পাকিস্তান করে ৯ উইকেটে ৩১৫ রান।

ভারতের বিপক্ষে ৫ উইকেট পাওয়া মোস্তাফিজ আজও তুলে নেন ৫ উইকেট। এছাড়া ৩ উইকেট নেন সাইফউদ্দিন। একটি উইকেট নেন মেহেদী মিরাজ।

এমআর/পি

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়