logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
evaly

প্রত্যাশাকে চাপ হিসেবে নিচ্ছে না দল: মাশরাফি

স্পোর্তস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০১ জুলাই ২০১৯, ২১:১৮ | আপডেট : ০১ জুলাই ২০১৯, ২১:৪৩
BANvIND- rtvonline
ছবি- সংগৃহীত
পোর্ট অব স্পেন যদি আবার মাশরাফিদের কাছে ধরা দেয় এজবাস্টনে এসে? তাই যদি হয়, এর থেকে বেশি কিছু আর কিসে আছে। বিশ্বকাপের ইতিহাসে বাংলাদেশ ভারতের চতুর্থ বার দেখা হবে মঙ্গলবার এজবাস্টনে। এই ম্যাচে বাংলাদেশকে জিততেই হবে সেমি-ফাইনালে যেতে হলে। এছাড়া কোনও পথ নাই আপাতত।

এর আগে তিনবারের দেখায় দুইবার জয় পায় ভারত, বাংলাদেশ পায় একবার। এবার কি তবে অংকটা পাল্টে দিতে পারবে মাশরাফিরা! মানে হিসেবটা ২-২ আর কি।

এজবাস্টনে মঙ্গলবার মাঠে নামার আগে সোমবার ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে হাজির হোন টাইগার অধিনায়ক। কথা বলেন ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে। মাশরাফিরও প্রত্যাশা, নিজেদের শতভাগ দিতে পারলে যেকোনো কিছুই ঘটতে পারে।

‘প্রত্যেকবার মুখোমুখিতে আমরা ভারতকে হারানোর চেষ্টা করি। যদিও ভারত অনেক শক্তিশালী দল। শেষ কয়েক বছর বিশ্বকাপে তারা বেশ ভালো দল। বর্তমান দলটা অনেক বেশি শক্তিশালী। সত্যি কথা বলতে আমরা মাঠে সেরাটা দিতে পারলে যে কোন কিছুই হতে পারে। আমরা যদি ভালো একটা দিন কাটাতে পারি, সব বিভাগে ভালো খেলতে পারলে এবং একশ ভাগ সঠিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারলে যে কিছুই হতে পারে।  সবাই জানে আমাদের দিনে আমরা যে কাউকে হারাতে পারি। আমি জানি কাজটা কঠিন, তবে সেরা ক্রিকেট খেলতে পারলে অসম্ভব নয়।’

এজবাস্টনের উইকেটে রোববার ইংল্যান্ডের কাছে হেরেছে ভারত। স্বাগতিকদের বিপক্ষে ভারতীয় বোলারদের অসহায় আত্মসমর্পণ কিছুটা আশা জাগাচ্ছে বাংলাদেশকেও। মাশরাফির আশা, একই উইকেটে খেলা হলে কিছু সুবিধা দু’দলই পাবে।

‘দুই দলই একই উইকেটে খেলবে। কেউ এখান থেকে বেনিফিট পাবে এমনটা ভাবা ভুল। ওরা আগের দিন এই উইকেটেই খেলে গেছে। আমার মনে হয় ভারতের স্পিন আক্রমণ অনেক শক্তিশালী। আপনি যদি শেষ দুই বছরে পরিসংখ্যান দেখেন তাহলেই স্পষ্ট হয়ে যাবে। ইংল্যান্ডের পরিকল্পনা দেখে আমাদের পরিকল্পনা করা উচিত হবে না। আমাদের শক্তি অনুযায়ী আমাদের পরিকল্পনা করতে হবে।’

সেমি-ফাইনালে যাওয়ার জন্য এই ম্যাচটা যে কতটা জরুরী সেটা মাশরাফিরাও জানেন ভালমতো। তার সঙ্গে যোগ হয়েছে দেশের মানুষের প্রত্যাশাও। প্রত্যাশা তো নয়, এর সঙ্গে আছে চাপও।

‘আমার মনে হয় না আমাদের স্কিলের সমস্যা আছে। অবশ্যই ক্রিকেট মানসিক খেলা। সমর্থকেরা তাদের মতো করে ভাবতে পারে। এমনটা নয় যে, তাদের ভাবনা মাথায় নিয়ে আমরা খেলতে নামি। আমরা যখন খেলতে নামি তখন সব চাপ আমাদের মোকাবেলা করতে হবে এই মানসিকতা নিয়েই খেলতে নামি।’

মাশরাফি আরও বলেন, চাপের ব্যপারটা ম্যান টু ম্যান ভেরি করে। অবশ্যই মাঠে চাপ থাকে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে বাংলাদেশি সমর্থকরা সাপোর্ট করছে। অবশ্যই তারা চায় জয়। এটাই স্বাভাবিক।  ভারতের দর্শকরা তাদের দলকে সাপোর্ট করে জয়ই চাইবে। এটা স্বাভাবিক বিষয়। এই প্রত্যাশার কারণে আমরা চাপে থাকবো সেটা নয়। মাঠের ১১ জন খেলোয়াড় ভিন্ন ভিন্ন পরিস্থিতিতে চাপে থাকে, এমন প্রত্যাশার কারণে নয়।’

এমআর/

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়