logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬
evaly

পার্থক্য ওরা ভারত, আমরা বাংলাদেশ: সৌম্য

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৭ জুন ২০১৯, ২২:১১ | আপডেট : ২৭ জুন ২০১৯, ২২:৩৪
সৌম্য সরকার - rtvonline
ছবি- সংগৃহীত
বাংলাদেশ ও ভারতের ম্যাচ ভারত এবং পাকিস্তানের ম্যাচকেও ছাড়িয়ে যায়। হোক দ্বিপাক্ষিক কিংবা বড় কোনও আসরে। বিশ্বকাপে হলে তো কথাই নেই। এই ধরুন, ২০১৫ বিশ্বকাপ আর ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সমর্থকদের রেষারেষি পৌঁছে যায় চরম পর্যায়ে। এর সঙ্গে যোগ হয় ম্যাচের কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্তও।

যদিও ২০০৭ বিশ্বকাপে পোর্ট অব স্পেনে ঐতিহাসিক জয়ের পর আইসিসির টুর্নামেন্টে ছয়বারের দেখায় ভারতীয়দের বিপক্ষে কোনও জয় নেই বাংলাদেশের।

সব পেছনে ফেলে ২০১৯ বিশ্বকাপেও বাংলাদেশের সামনে আবার ভারত। কদিন সময় আছে বলেই হয়তো সমর্থকরা উত্তেজনা চেপে রাখছে, সময় হলে ঠিকই দেখিয়ে দেবে।

এক সপ্তাহে টানা তিন ম্যাচ খেলে ভারত মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের। অথচ এই সপ্তাহে খেলাই নেই বাংলাদেশের। একদল লড়াইয়ে, আরেক দল ছুটিতে উপভোগ করছেন ইংলিশ সামার।

বাংলাদেশ দলের ওপেনার সৌম্য সরকার আছেন টিম হোটেলেই। বৃহস্পতিবার কথা বলেছেন গণমাধ্যমের সঙ্গে। এসময় তিনি তুলে ধরেন বাংলাদেশ ও ভারতের পার্থক্যটা ঠিক কোথায়।

তিনি বলেন, ওরা ভারত, আমরা বাংলাদেশ—পার্থক্য এটাই। মাঠের খেলায় যারা ভালো খেলবে তারাই জিতবে। আসলে সবকিছু নির্ভর করছে ভালো খেলার ওপর। এই বড় টুর্নামেন্টে যদি নাম দেখে খেলতে যান, তবে অবশ্যই শুরুতে পিছিয়ে থাকবেন। এসব চিন্তা না করে জয়ের লক্ষ্যে একটা ভালো পরিকল্পনা করে নামতে হবে। ওদের শক্তি ও দুর্বলতা বুঝে আমাদের তিন বিভাগেই ভালো করতে হবে। ভালো করতে পারলে অবশ্যই জিততে পারি।

এই টাইগার ওপেনারের ভাবনা ভারতীয় বোলারদের নিয়ে। পেসারদের নিয়ে ভাবনাটা একটু বেশি হলেও বলছেন, ব্যবহৃত উইকেটে যদি খেলা হয়, তাহলে সুবিধা পাবে স্পিনাররা।

তিনি বলেন, ওদের নাম্বার ওয়ান পেস বোলার আছে। ওদের স্পিনাররাও অনেক ভালো। ওদের কিভাবে পিক করতে হবে সেটাই হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ। কখনো কখনো আগে থেকে কোনও বোলারকে পিক করার করা ভেবে রাখি। দেখা যায় ম্যাচে সে সবচেয়ে ভালো বোলিং করছে। এটা সামলানোই হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ। আর উইকেট পেস নাকি স্পিন নির্ভর সেটা এখনই বলা যাচ্ছে না। নতুন উইকেট থাকলে পেসারদের একটু সুবিধা থাকে শুরুতে। আর ব্যবহৃত উইকেট থাকলে স্পিনাররা ভালো করতে পারে।

সৌম্যর ভাবনায় আপাতত সেমি-ফাইনালে খেলার স্বপ্ন নেই। থাকলেও চেপে রেখে শান্ত থাকার চেষ্টা করছেন আর কি!

তার মতে, ওইটা তো বদলাতে পারবো না। আমাদের যে দুটো ম্যাচ আছে সেই দুটিতে জিতলেই সেমিফাইনালের দৌড়ে থাকতে পারবো। আমরা আমাদের কাজ নিয়েই ভাবছি।

এমআর/কে

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়