logo
  • ঢাকা শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬
evaly

ইতিহাস বদলাতে পারেনি পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৭ জুন ২০১৯, ০১:২৯ | আপডেট : ১৭ জুন ২০১৯, ১০:৪১
ছবি- সংগৃহীত
ইতিহাসে পানি ঢেলে দিয়েছে বৃষ্টি। পাকিস্তান এবারও হারল, পারল না ইতিহাস বদলাতে। বিশ্বকাপে আগের ছ’বারের দেখায় প্রতিবারই হেরেছিল পাকিস্তান। এবার আরেকটা হার যোগ হয়ে মোট সাত ম্যাচ হলো।

প্রকৃতিও মনে হয় চায় না পাকিস্তান জিতুক! নইলে এত বাধা! বারে বারে বৃষ্টির হানা নাকাল করেছে সরফরাজ আহমেদ নেতৃত্বাধীন দলকে।

ম্যানচেস্টারের ওল্ডট্রাফোর্ডে টস জিতে পাকিস্তান অধিনায়কের সিদ্ধান্ত আগে বোলিং করার। আগে ব্যাটিং করার আমন্ত্রণ পেয়ে বিরাট কোহলি অবশ্য খুশি হননি আবার নারাজও হননি।

ভারতের দুই উদ্বোধনী দুই ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা আর লোকেশ রাহুলের জুটি রেকর্ড গড়েছে পাকিস্তানের বিপক্ষে। এর আগে ১৯৯৬ বিশ্বকাপে শচীন টেন্ডুলকার আর নবজাত সিং সীধুর ৯০ রানের জুটিই ছিল এতদিন উদ্বোধনী জুটির সর্বোচ্চ রান।

লোকেশ রাহুল ৭৮ বলে ৫৭ রান করে ফেরেন সাজঘরে ওহাব রিয়াজের বলে ক্যাচ দিয়ে। এই জুটি ভাঙতেই সরফরাজ ব্যবহার করেছেন সাত বোলার।

রাহুলের বিদায়ের পর বিরাট কোহলি আর রোহিত শর্মার জুটি থেকেও আসে ৯৮ রান।

রোহিত একপ্রান্তে রীতিমত তাণ্ডব চালান পাকিস্তানি বোলারদের উপর। ১১৩ বলে ১৪০ করে থামেন হাসান আলীর বলে।

এরপর চার নম্বরে ব্যাট করতে নেমে হার্দিক পান্ডিয়া ১৯ বলে ২ চার আর ১ ছয়ে ২৬ রানে বিদায় নেন মোহাম্মদ আমিরের বলে।

কোহলির লক্ষ্য বিরাট ইনিংসে। কিন্তু পারলেন না। সেই আমিরের বলেই ৭৭ রানে বিদায় নেন ভারত অধিনায়ক।

শেষ পর্যন্ত পাকিস্তানের সামনে ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ৩৩৬ রানের পাহাড় সম লক্ষ্য দাড় করে দেয় ভারত।

পাকিস্তানের হয়ে ৩ উইকেট নেন মোহাম্মদ আমির আর ১টি করে উইকেট নেন হাসান আলী ও ওহাব রিয়াজ।

এই বৃষ্টি এই রোদের ম্যাচে পাকিস্তানের শুরুটা হয় থমকে থমকে। শুরু হলেও স্বস্তি দেয়নি ভারতীয় বোলাররা। ৭ রান করা ইমাম উল হককে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে সাজঘরে ফেরান বিজয় শংকর।

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ১০৪ রান যোগ করে স্বস্তি ফেরান বাবর আজম আর ফখর জামান। তাতেও স্বস্তি নেই। ব্যক্তিগত ৪৮ রানের মাথায় বাবর আজমকে ফেরান কুলদীপ যাদব।

এর দুই ওভার পরেই ফখর জামানকে ৬২ রানে থামিয়ে দেন কুলদীপই।

এরপর আবারও বৃষ্টিতে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। পুনরায় শুরুর পর পাকিস্তানের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৭ ওভারে ১৮০ রান। ম্যাচ নেমে আসে ৪০ ওভারে কি নির্মম!

এমন অবস্থায় শেষদিকে ইমাদ ওয়াসিমের ৩৯ বলে ৪৬ রানের ইনিংসও মূল্যহীন। ৪০ ওভারে টেনে টুনে ৬ উইকেটে ২১২ রান পর্যন্ত তুলতে পারে পাকিস্তান। ভারতের হয়ে সমান ২টি করে উইকেট নেয় বিজয় শংকর, হার্দিক পান্ডিয়া আর কুলদীপ যাদব।

বৃষ্টি আইনে ৮৯ রানের জয়ে মাঠ ছাড়ে ভারত। এই জয়ে পয়েন্ট তালিকায় তিন নম্বরে উঠে আসে বিরাটের দল।

Here's how the table looks after today. #CWC19 | #INDvPAK pic.twitter.com/tS3c49AWYh

— Cricket World Cup (@cricketworldcup) ১৬ জুন, ২০১৯
এমআর/ওয়াই

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়