logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬
evaly

ভারতের ৭-০ নাকি পাকিস্তানের নয়া ইতিহাস!

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৬ জুন ২০১৯, ১৯:৫৯ | আপডেট : ১৬ জুন ২০১৯, ২০:১১
ছবি- সংগৃহীত
পাকিস্তানি বোলারদের এক কথায় বেদম পিটিয়েছে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। শুনতে পাকিস্তানি সমর্থকদের খারাপ লাগলেও এমনটাই ঘটিয়েছে রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল, বিরাট কোহলি আর হার্দিক পান্ডিয়ারা।

বিশ্বকাপে দু’দলের এটি সপ্তম দেখা। এর আগে ছয়বারের দেখায় সবকটা ম্যাচেই হেরেছে পাকিস্তান। এই গল্প অবশ্য পুরনো হয়ে গেছে এতদিনে। আজ তাই নতুন ইতিহাস লেখার পালা।

দিন শেষে পাকিস্তান ইতিহাস গড়বে জয় দিয়ে, নয়তো ৭-০ ম্যাচে এগিয়ে যাবে ভারত। আপাতত অপেক্ষার পালা শেষের।

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে বৃষ্টির আশঙ্কা থাকলেও শেষ পর্যন্ত সূর্য হেসেছে, যথাসময়ে টসও হলেও ঝামেলা বাধায় ৪৬ ওভার ৪ বলের সময়।

টসভাগ্য সরফরাজ আহমেদের, সেটা বোধ হয় সইলো না পায়ে ঠেলে দিল। ব্যাটিং করার আমন্ত্রণ জানায় বিরাট কোহলিকে। আগের দিন পিচ কাভারে ঢাকা ছিল বলেই নাকি আগে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত ছিল সরফরাজের।

রোহিত শর্মা আর লোকেশ রাহুলের উদ্বোধনী জুটি রেকর্ড গড়েছে পাকিস্তানের বিপক্ষে। এর আগে ১৯৯৬ বিশ্বকাপে শচীন টেন্ডুলকার আর নবজাত সিং সীধুর ৯০ রানের জুটিই ছিল এতদিন উদ্বোধনী জুটির সর্বোচ্চ রান।

লোকেশ রাহুল ৭৮ বলে ৫৭ রান করে ফেরেন সাজঘরে ওহাব রিয়াজের বলে ক্যাচ দিয়ে। এই জুটি ভাঙতেই সরফরাজ ব্যবহার করেছেন সাত বোলার।

রাহুলের বিদায়ের পর বিরাট কোহলি আর রোহিত শর্মার জুটি থেকেও আসে ৯৮ রান।

এর ভেতর চলতি বিশ্বকাপে নিজের দ্বিতীয় শতক তুলে নেন রোহিত শর্মা। শেষপর্যন্ত ১১৩ বলে ১৪০ রান করে ক্যাচ দেন হাসান আলীর বলে।

চার নম্বরে ব্যাট করতে নেমে হার্দিক পান্ডিয়া তার সহজাত খেলাটাই খেলেছেন। ১৯ বলে ২ চার আর ১ ছয়ে ২৬ রানে বিদায় নেন মোহাম্মদ আমিরের বলে।

মহেন্দ্র সিং ধোনি আজ কিছুই করতে পারেননি চির প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে। মাত্র ১ রান করেই বিদায় নেন আমিরের বলে ক্যাচ দিয়ে।

৪৬ ওভার ৪ বলের মাথায় বৃষ্টি বাধায় খেলা বন্ধ থাকে প্রায় আধ ঘণ্টা। এতে অবশ্য ওভার কমেনি।

ম্যাচ শুরুর পরের ওভারের চতুর্থ বলে আবারও আমিরের হানা। বিরাট কোহলিকে ৭৭ রানে ফেরান এই বাঁহাতি পেসার।

শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ৩৩৬ রান সংগ্রহ করে ভারতীয়রা।

পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন মোহাম্মদ আমীর আর ১টি করে উইকেট নেন হাসান আলী ও ওহাব রিয়াজ।

এমআর/সি

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়