• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬
evaly

হোল্ডিংকে আইসিসির চাপ, ছাড়তে চান দায়িত্ব

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১২ জুন ২০১৯, ২১:৫৪ | আপডেট : ১২ জুন ২০১৯, ২২:০৮
মাইকেল হোল্ডিং
জাতীয় দলের জার্সিতে প্রায় এক যুগ খেলেছেন। নিশ্চুপ থাকলেও উইকেট তোলার সক্ষমতার কারণে তাকে ‘উইসপারিং ডেথ’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। ১৯৭৫ থেকে ১৯৮৭ সাল পর্যন্ত ৬০ টেস্টে ২৪৯ ও ১০২ ওয়ানডে খেলে ১৪২ উইকেট তুলেছেন মাইকেল হোল্ডিং। ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই ক্রিকেট গ্রেট কমেন্ট্রি বক্সে নিজস্ব স্টাইলে ম্যাচের আপডেট নিয়ে কথা বলার জন্যও বেশ সুপরিচিত। মাঠের ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পর এক বন্ধুর হাত ধরে জ্যামাইকান রেডিওতে প্রথম কমেন্টেটর হিসেবে ভূমিকা পালন করেন। প্রথমে ক্যারিবিয়ান টিভি আর পরবর্তীতে দক্ষিণ আফ্রিকার সুপার স্পোর্টসের হয়ে দায়িত্বপালন করে নতুন পরিচিতি পান হোল্ডিং। এর পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। চলতি বিশ্বকাপেও কমেন্টেটর হিসেবে কাজ করছেন। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ মহাযজ্ঞের এবারের আসরে আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত পছন্দ না হওয়ায় সেটি সরাসরি ম্যাচ চলাকালীন বলে দিয়েছেন। আর এতেই শুরু হয়েছে নয়া বিতর্ক।

evaly
নিজেদের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানকে স্রেফ উড়িয়ে দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্যারিবীয়রা দ্বিতীয় ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামে। ওই ম্যাচে দায়িত্বরত দুই আম্পায়ার- নিউজিল্যান্ডের ক্রিস গাফানি ও শ্রীলঙ্কার পালিয়া গুরুগের সিদ্ধান্ত ব্যাপক বিতর্কের জন্ম দেয়। বেশ কয়েকটি ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে আলোচনায় চলে আসেন দুজনই।

উইন্ডিজ ওপেনার ক্রিস গেইলকে তিনবার লেগ বিফোর (এলবিডব্লিউ) আউট দিয়েছিলেন আম্পায়ার ক্রিস গাফানি। পরে রিভিউয়ে আম্পায়ারদের সিদ্ধান্তই ভুল প্রমাণিত হয়। তৃতীয়বার অবশ্য রিভিউ নিয়ে বাঁচতে পারেননি ইউনিভার্সেল বস খ্যাত এই তারকা।

একই ম্যাচে ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক জেসন হোল্ডারকেও এলবিডব্লিউ আউট দেয়া হয়। যদিও, হোল্ডারের আউটের বলটি ছিল ‘নো বল’। সেই হিসেবে ‘ফ্রি হিট’ হওয়ার কথা ছিল পরের বলটি। সঙ্গে এক রানতো সংযোজনের বিষয়টিতো ছিলই। যদিও আম্পায়ারদের নজরে আসেনি সেটি। 

সেই সময় কমেন্ট্রি বক্সে ছিলেন মাইকেল হোল্ডিং। তিনি অন এয়ার আম্পায়ারিংয়ের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেন। হোল্ডিং বলেন, আমি এই কথাটি বলার আগে দুঃখ প্রকাশ করছি। এই ম্যাচে আম্পায়ারিং খুবই বাজে হচ্ছে।

হোল্ডিংয়ের এমন মন্তব্যের পরেই আইসিসির সম্প্রচার বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, বিশ্বকাপের মূল্যবোধের কথা মাথায় রেখে নেতিবাচক কোনও কিছু কমেন্টেটরদের বলা উচিত নয়। এমনকি ইমেইল পাঠিয়ে সতর্ক করা হয় হোল্ডিংকে।

এরপর হোল্ডিংও এর জবাব দেন। গালফ নিউজ জানাচ্ছে, উইন্ডিজদের এই কিংবদন্তি পেসার বলেন, একজন সাবেক ক্রিকেটার  হিসেবে আমার মনে হয়, ক্রিকেটের মান আরও ভাল হওয়া উচিত। তারা খারাপ কাজ করলেও তাদেরকে বাঁচানোর প্রচেষ্টা হচ্ছে। যদি তারা ফিফা বিশ্বকাপে ম্যাচ পরিচালনা করতেন, তাহলে তাদের এই বিশ্বকাপে আর ম্যাচ পরিচালনা করতে দেয়া হত না। 

হোল্ডিং ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, অনুগ্রহ করে আমাকে জানানো হোক, কার্ডিফে যাওয়ার পরিবর্তে আমি কী দেশের নিউ মার্কেটে ফিরে যাব?

ওয়াই

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • হ্যাঁ
    ক্লিক করুন
  • না
    ক্লিক করুন
  • মন্তব্য নেই
    ক্লিক করুন
মোট ভোট সংখ্যা : ০