• ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯, ৪ আষাঢ় ১৪২৬
evaly

শেষ হাসি হাসলো অস্ট্রেলিয়াই

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৬ জুন ২০১৯, ২৩:৩৭ | আপডেট : ০৬ জুন ২০১৯, ২৩:৫৯
ছবি- সংগৃহীত
বিশ্বকাপে বরাবরের মতোই শক্তিশালী দল পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারিয়ে শুরু হয়েছে তাদের দ্বাদশ বিশ্বকাপের আসর। অন্যদিকে দুইবারের বিশ্বকাপ জয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজও পাকিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করে দুর্দান্তভাবে।

evaly
আজ দু’দলই নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে একে অপরের প্রতিপক্ষ। নটিংহ্যামের ট্রেন্টব্রিজে অনুষ্ঠিত হয়েছে ম্যাচটি।

টস জিতে ক্যারিবীয় অধিনায়ক সিদ্ধান্ত নেন আগে ফিল্ডিং করার। জেসন হোল্ডারের এই সিদ্ধান্ত বেশ ফলপ্রসূ হয় উইন্ডিজ পেসারদের কল্যাণে।

আট ওভারের ভেতর অজিদের ৪ উইকেট তুলে নেয় শেলডন কটরেল, আন্দ্রে রাসেল, ওশান থমাসরা। ডেবিড ওয়ার্নার ৩, অ্যারন ফিঞ্চ ৬, উসমান খাজার ১৩ আর ম্যাক্সওয়েল খুলতে পারেননি রানের খাতা।

দলের ৩৮ রানেই যখন টপ অর্ডারের বিদায় তখন দলের হাল ধরেন স্টিভেন স্মিথ। ১০৩ বলে ৭৩ রানের ইনিংস খেলে পাল্টে দেন ভঙ্গুর স্কোর-কার্ডের চেহারা।

স্মিথের বিদায়ের পর আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ইতিহাস গড়ে ফেলেন নাথান কোলটার নীল। আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে খেলেন ৬০ বলে ৯২ রানের ইনিংস!

যা কিনা বিশ্বকাপের ইতিহাসে আট নম্বর ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ রান আর ওয়ানডে ক্রিকেটের দ্বিতীয়।

নীলের এমন দুর্দান্ত ইনিংসের পরও গোটা ৫০ ওভার খেলতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। ৪৯ ওভারে অলআউট হতে হয় ২৮৮ রানে।

ক্যারিবীয়দের হয়ে ৩ উইকেট নেন কার্লোস ব্রেথওয়েট। দুটি করে উইকেট নেন ওশান থমাস, শেলডন কটরেল ও আন্দ্রে রাসেল। একটি উইকেট নেন জেসন হোল্ডার।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে প্যাট কামিন্সের বলে মাত্র ১ রান করে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন এভিন লুইস।

গেইল তার বিশ্বকাপ ক্যারিয়ারে ১ হাজার রান পূর্ণ করে স্টার্কের বলে লেগ বিফোর হয়ে সাজঘরে ফেরেন ২১ রান করে। এরপর শাই হোপ আর নিকোলাস পুরাণ মিলে নতুন করে শুরু করেন ক্যারিবীয়দের ইনিংস। এই জুটি থেকে আসে ৬৮ রান।

পুরান ৪০ রান করে বিদায় নেন দলীয় ৯৯ রানের মাথায়। এরপর শিমরণ হেটমেয়ার রানআউট হয়ে ফেরেন ২১ রান করে।

শাই হোপ ৬৮ রানে ক্যাচ দিয়ে আশাহত করেন ক্যারিবীয়দের। শেষদিকে উইন্ডিজ অধিনায়কের অর্ধশতকের ইনিংস জয়ের স্বপ্ন দেখালেও অস্ট্রেলীয় বোলারদের সঙ্গে পেরে উঠতে পারেনি ক্যারিবীয়রা।

মিচেল স্টার্ক একাই নেন ৫ উইকেট, ১০ ওভারে ছিল ১ মেডেন আর দিয়েছেন মাত্র ৪৬ রান। এছাড়া প্যাট কামিন্স নেন ২টি আর ১ উইকেট নেন অ্যাডাম জাম্পা। তাতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৭৩ রান পর্যন্ত তুলতে পারে।

৩৮ রানে যে অস্ট্রেলিয়ার ৪ টপ অর্ডারের বিদায় চিন্তার ভাঁজ ফেলে দিয়েছিল, শেষ পর্যন্ত সেই অস্ট্রেলিয়াই ১৫ রানের জয়ে চড়া হাসিতে মাঠ ছাড়ল। ক্রিকেট যেন এক নির্মম সৌন্দর্য।

এমআর/পি

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • হ্যাঁ
    ক্লিক করুন
  • না
    ক্লিক করুন
  • মন্তব্য নেই
    ক্লিক করুন
মোট ভোট সংখ্যা : ০