logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬
evaly

বিপর্যস্ত অজিরা ঘুরে দাঁড়াল দারুণভাবে

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৬ জুন ২০১৯, ১৯:৩২ | আপডেট : ১৩ জুন ২০১৯, ২০:৫৮
ছবি- সংগৃহীত
মাত্র ৩৮ রানেই শেষ অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডার। দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলের মাথায় ওশানে থমাসের বলে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান অ্যারন ফিঞ্চ ৬, তৃতীয় ওভারের শেষ বলে শেলডন কটরেল ফেরান আরেক উদ্বোধনী ডেভিড ওয়ার্নারকে ৩ রানে। 

evaly
ষষ্ঠ ওভারের শেষ বলে আন্দ্রে রাসেলের বলে ১৩ রানে উসমান খাজা আর ৭ ওভার ৪ বলের সময় শূন্য রানে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ফেরেন শেলডন কটরেলের বলে ক্যাচ দিয়ে।

পাঁচবারের বিশ্বকাপ জয়ীদের এমন খারাপ অবস্থা যে দেখতে হবে তা হয়তো কেউ ভাবেনি। ৩৮ রানে ৪ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর এটাও হয়তো কেউ ভাবেনি ৪৯ ওভার পর্যন্ত খেলে ফেলবে অজিরা।

নটিংহ্যামের ট্রেন্টব্রিজে অ্যারন ফিঞ্চ টস হেরে ক্যারিবীয় অধিনায়কের কাছে আমন্ত্রণ পায় ব্যাটিংয়ের। এই মাঠকে এক কথায় রানের সাগর বলা যায়। অথচ এই মাঠেই অজি টপ-অর্ডারের ভরাডুবি।

আন্দ্রে রাসেল, শেলডন কটরেল, ওশানে থমাসদের গতি আর বাউন্সের কাছে অসহায় হতে দেখা গেছে অজি ব্যাটারদের।

এই অসহায়ত্ব থেকে আবারও ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা। অ্যালেক্স ক্যারেকে সঙ্গে নিয়ে স্টিভ স্মিথের ধাক্কা সামলানোর পালা বৃথা যায়নি। দুইজনে মিলে করেন ৬৮ রানের জুটি।

ক্যারে ৫৫ বলে ৪৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন রাসেলের বলে। এরপর স্মিথ জুটি গড়েন নাথান কলটার-নিলকে নিয়ে। ১০২ রানের লম্বা জুটি গড়ে উল্টো চাপে ফেলে দেন ক্যারিবীয় বোলারদের।

১০৩ বলে ৭৩ রানের ইনিংস খেলে দলকে চাপমুক্ত করেন স্মিথ। আট নম্বরে ব্যাট করতে নেমে যা করলেন সেটা এক কথায় অসাধারণ!

যদিও শতক পূর্ণ করার ঠিক আট রান বাকি রেখেই ফেরেন সাজঘরে। তবুও দিনশেষে বাহবা পাবেন কোলটার। ৬০ বলে ৯২ রানের ইনিংসে ছিল ৮টি চার আর ৪টি ছয়।

৩৮ রানে ৪ উইকেট পড়ে যাওয়া অস্ট্রেলিয়ার  সংগ্রহ দাঁড়ালো সব উইকেট হারিয়ে ২৮৮। অস্ট্রেলিয়া বলেই হয়তো সম্ভব।

ক্যারিবীয়দের হয়ে ৩ উইকেট নেন কার্লোস ব্রেথওয়েট। ২টি করে উইকেট নেন ওশান থমাস, শেলডন কটরেল ও আন্দ্রে রাসেল। ১টি উইকেট নেন জেসন হোল্ডার।

এমআর/ওয়াই

evaly
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়